এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি ও ছোট ভাকলা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মহম্মদ আলী মিয়া। আওয়ামী লীগের যোগদানের পর গোয়ালন্দ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ পান তিনি। দলে যোগ দিয়েই আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ভোট গ্রহণে ছোট ভাকলা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন তিনি।

মহম্মদ আলী ইতিপুবে ছোটভাকলা ইউনিয়নে বিএনপির প্রাথী হিসেবে দুই বার চেয়ারম্যান নিবাচিত হয়েছিলেন।

ওই সময়ে তিনি অবশ্য সফলতার সাথেই দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে এ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক প্রত্যাশি ছিলেন বর্তমান চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনসহ আরো তিনজন। এর মধ্যে তাদের অনুসারীরা প্রকােশ্য এবং ওই তিন নেতা প্রত্যক্ষভাবে বিদ্রোহী প্রার্থী মহম্মদ আলীর পক্ষে কাজ করছেন।

এমন অভিযোগ করেছেন নৌকার প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন। আর ভোটাররা পরিবর্তন চায়। বর্তমান চেয়ারম্যান আমজাদ হোসোনের গত দুই টামে নিজের ব্যক্তি উন্নয়ন ছাড়া ইউনিয়নবাসী তেমন কোন সাহায্য বা রাস্তা ঘাট ও নদী ভাঙ্গন রক্ষায় কোন ভূমিকা রাখতে পারে নাই। এসব কারনে ভোটারদের নজর ও আগ্রহ মহম্মদ আলীর দিকে। এ জন্য নির্বাচনী জরিপে বিদ্রোহী মহম্মদ আনারস প্রতিক নিয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছেন।

বুধবার দুপুরে গোয়ালন্দ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ অনুষ্ঠানে আনারস প্রতীক দেওয়া হয় মহম্মদ আলী মিয়াকে।

মহম্মদ আলী মিয়া বলেন, জনপ্রিয়তার কারণেই তার নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা। তিনি আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে নির্বাচন করছেন না। তিনি আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আমজাদ হোসেনকে পরাজিত করতে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন। তিনি বলেন, আমি ১৯৯২ সাল থেকে ১৯৯৭ সাল এবং ২০০২ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত সফল চেয়ারম্যান ছিলাম।