মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : ফেনী নদীর মিরসরাই অংশে বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীদের গুলিতে বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকনসহ ৪ জন গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারপূর্বক শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ অক্টোবর) বিকেল ৫টার দিকে বারইয়ারহাট পৌর এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। মিছিলে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ৫ শতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেয়।

মিছিল শেষে সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে ফাজিলপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মজিবুল রিপন সহ দোষীদের গ্রেফতার করে শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

তারা বলেন, রিপন চেয়ারম্যান দীর্ঘদিন ধরে ফেনী নদীর মিরসরাই অংশ থেকে জোরপূর্বক বালু তুলে যাচ্ছে। রেজাউল করিম খোকন অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের প্রতিবাদ করায় পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যার জন্য গুলি করা হয়।

জানা গেছে, শুক্রবার সকালে নদীর কলমিচর এলাকায় বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম কয়েকজনকে নিয়ে ফাজিলপুরের ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুল হক রিপনের লোকজনের সাথে কথা বলতে যান। এসময় তাদের সাথে খোকনের কথা বলার সময় উভয় পক্ষ বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন।

বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে এলোপাতাড়ি গুলি করলে গুলিবিদ্ধ হন মেয়র রেজাউল করিম খোকন (৫০), হিঙ্গুলী ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক অসোক সেন (৪২) যুবলীগ কর্মী সাইদ খাঁন দুখু (৩৫) বোট চালক আব্দুর রহিম (৩৫)।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে মেয়র খোকনের অবস্থা আশংকাজনক।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মিসরাই সার্কেল) লাবিব আবদুল্লাহ বলেন, মুহুরী প্রজেক্ট এলাকায় বারইয়ারহাট পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম খোকন, অশোক সেন, শহীদুল ইসলাম দুখু গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।পরিস্থিতি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।