বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি : বাঙালি জাতি বীরের জাতি বলেই মাত্র ৯ মাসে দেশ স্বাধীন হয়েছে। দেশ স্বাধীনের মূলে অনুপ্রেরণা ছিল বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ। একটি দল দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়াতে চায়। তাই এই বিজয়ের মাসে স্বাধীনতা চেতনাধারীদের সতর্ক থাকতে হবে। তিনি আরো বলেন আগামি ফেব্রুয়ারি থেকে সকল মুক্তিযোদ্ধার মুখ থেকে মুক্তিযুদ্ধের কথা রেকর্ড করা হবে যাতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস মুছে না যায়।

জামালপুরের বকশীগঞ্জে বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমন্বয় পরিষদ ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ সাংস্কৃতিক ফোরামের যৌথ আয়োজনে এবং উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় শনিবার বিকালে ধানুয়া কামালপুর কো-অপারেটিভ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব উপলক্ষে ৪ ডিসেম্বর ধানুয়া কামালপুর হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যকালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক এমপি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রসার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ।

এ সময় স্বাগত বক্তব্য রাখেন এমআইডি, পরিকল্পনা কমিশনের অতিরিক্ত সচিব ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান।

বৃৃহত্তর ময়মনসিংহ সমন্বয় পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এসময় অন্যান্যের মধ্যে সাবেক সিনিয়র সচিব আবদুস ছামাদ, জামালপুর জেলা প্রশাসক মুর্শেদা জামান, জেলা পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুন মুন জাহান লিজা, বীরমুক্তিযোদ্ধা সুজায়েত আলী, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মফিজ উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময়ের ঘটনার স্মৃতিচারণ, ৪ ডিসেম্বর ধানুয়া কামালপুর মুক্ত দিবসের গুরুত্ব নিয়ে তাপর্যপূর্ণ আলোচনা করা হয়।

অনুষ্ঠানে জামালপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলার বীরমুক্তিযোদ্ধা বৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।