আবু বাককার সুজন, বাগমারা (রাজশাহী) : বাগমারার কামারবাড়ি আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলামের বিরুদ্ধে এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মিথ্যা মামলা করে ফেঁসে যাচ্ছেন ওই ছাত্রীর বাবা।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের অধীনে জুডিশিয়াল তদন্তে মামলাটি সম্পূর্নই মিথ্যা প্রমানিত হয়েছে। যা তথ্য প্রযুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে চরমভাবে মানহানিকর বলে আসামি পক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট মাঈনুর রহমান জানান।

একজন সম্মানিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে এ ধরণে মিথ্যা মামলা করে প্রাতিষ্ঠানিক ও সামাজিকভাবে প্রধান শিক্ষকের সুনাম ও ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার অপরাধে বাদীর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করা হবে বলেও জানিয়েছেন এই আইনজীবি।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, কামারবাড়ি আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে স্কুলের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়ার খরচ ও বই কিনে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাঁর রুমে ডেকে নিয়ে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে যৌন হয়রানির চেষ্টা করেন।

এ কারণে সে মানষিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে এবং স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় বলে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রাজশাহীর আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বলেন, ওই ছাত্রী স্কুলে এসে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে সব সময় অন্য ছেলেদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করছিলো। এ কারণে সম্প্রতি ওই ছাত্রীকে স্কুল থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। এর কয়েকদিন পর এক ছেলের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় স্থানীয় লোকজন তাকে হাতেনাথে ধরে ফেলে এবং পাঁচ লাখ টাকা মোহরানা নির্ধারণ করে রেজিস্ট্রেরির মাধ্যমে (৩০০ টাকার নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে লিখিত অঙ্গীকারনামার মাধ্যমে) তাদের বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করে দেয়া হলেও তার বেপরোয়া চলাফেরার কারণে সংসার টিকেনি। অথচ তার বাবা সড়যন্ত্র করে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে তার মেয়েকে শ্লীলতাহানির মিথ্যা অভিযোগে মামলা করে অপপ্রচার চালিয়ে আসছিলো।

আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের অধীনে জুডিশিয়াল তদন্তেও মামলাটি সম্পূর্নই মিথ্যা বলে প্রমানিত হয়েছে।

এদিকে এ ধরণে মিথ্যা মামলা করে সম্মানহানি করার অপরাধে বাদীর বিরুদ্ধে মানহানি মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান শিক্ষক নুরুল ইসলাম।

তিনি আরো বলেন, আর কেউ যেনো ছাত্রীকে দিয়ে কোনো শিক্ষকের বিরুদ্ধে এ ধরনের মিথ্যা মামলা করার সুযোগ না পায় তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতেই তিনি মানহানি মামলা করবেন।