এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর বদলগাছিতে স্বামীর অকথ্য নির্যাতন ও মারধোর সহ‍্য করতে না পেরে দুই শিশু সন্তানকে রেখে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনায় জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ কর্তৃক হাতুরি উদ্ধারসহ স্বামী সোবাহান (৩৮)কে আটক করে বদলগাছী থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করে।

ঘটনাটি ঘটেছে বদলগাছি উপজেলার মথরাপুর ইউপির চক গোপিনাথ গ্রামে। নিহত ঐ গৃহবধু সাবিনা ইয়াসমিন (২৫) বগুড়া সারিয়াকান্দি উপজেলার পালক পিতা আজিজুরের মেয়ে । আটক সোবহান বদলগাছির মথরাপুর ইউপির চকগোপীনাথ গ্রামের মৃত মোসলেম উদ্দিনের ছেলে ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৮ বছর আগে নিহত সাবিনার সাথে বিয়ে হয় সোবহানের। তাদের ঘরে দুটি সন্তানও রয়েছে। সোমবার বিকেল ৫টায় সাবিনা তার দাদির অসুস্থতার কথা শুণে তার বাড়ি যেতে চাইলে স্বামী সোবাহান তাকে কোন টাকা দিতে চাননি। টাকা না দিয়ে তার স্বামী সাবিনাকে বলে তোর দাদি মরে গেলে কি হবে বলে বিভিন্ন ভাষায় গালমন্দ করতে থাকেন। গালমন্দের এক পর্যায়ে শাশুড়ি তার ছেলেকে বউ এর নামে অনেক উল্টাপাল্টা কথা বলে বাটাম ও হাতুরি দিয়ে মারাত্মক ভাবে মারধোর করেন।

মারধোর করার সময় পরিবারের কেউ এগিয়ে আসেননি। মারধোরের যন্ত্রণা সহ‍্য করতে না পেরে সাবিনা বাজার থেকে বিষাক্ত গ‍্যাস বড়ি ক্রয় করে নিয়ে আসেন। এবং সেটি খেয়ে ফেলে বমি করতে থাকেন। সবিনার অবস্থা বেশি খরাপ হতে থাকলে তার স্বামী ও বাড়ির লোকজন তাকে জয়পুরহাট আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার রোগীকে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানে ভর্তি ও চিকিৎসাধীন অবস্থায় আনুমানিক রাত সাড়ে ১২টার দিকে সাবিনার মৃত্যু হয়।

র‍্যাব আরও জানায় আটককৃতের বিরুদ্ধে বদলগাছি থানায় মামলা দায়ের করা হবে।