নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলার হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ এলাকার বঙ্গোপসাগরে ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভাসতে থাকা একটি ফিশিং বোট থেকে ১৩ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করেছে ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্র কোস্টগার্ডের একটি দল।

রোববার (৫ ডিসেম্বের ) সন্ধ্যার দিকে হাতিয়ার নিঝুম দ্বীপ থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরের পূর্ব দিক থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

একই দিন রাত ৯টার দিকে এ বিষয়ে চানতে চাইলে ভাসানচর কোস্টগার্ডের মাস্টার চীফ পেটি অফিসার খলিলুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তবে কোস্টগার্ডের এ কর্মকর্তা তাৎক্ষণিক উদ্ধারকৃত জেলেদের নাম ঠিকানা জানাতে পারেননি। তবে তারা গত ৫ দিন ধরে বঙ্গোপসাগরে ভাসছিলেন বলে জানিয়েছেন।

কোস্টগার্ড সূত্রে জানা গেছে, গত ১ ডিসেম্বর ১৩ জন জেলেসহ একটি ফিশিং বোটটি মাছ ধরার উদ্দেশ্যে বঙ্গোপসাগরে যায়। একপর্যায়ে আসস্মিক বোটটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। এরপর ভাসমান অবস্থায় গত ৫দিন তারা সমুদ্রে ভাসতে থাকে। খবর পেয়ে ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রের কোস্টগার্ডের একটি দল সমুদ্রে অনুসন্ধান চালিয়ে রোববার সন্ধ্যার দিকে বোটে থাকা জেলেদের উদ্ধার করে।

ভাসানচর কোস্টগার্ডের মাস্টার চীফ পেটি অফিসার খলিলুর রহমান আরও বলেন, এখনো উদ্ধারকৃত জেলেরা এবং কোস্টগার্ডের সদস্যরা ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রে এসে পৌঁছায়নি। তারা এসে পৌঁছালে পরে এ বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানানো হবে।

অপরদিকে, একাধিক সূত্র জানিয়েছে উদ্ধারকৃত জেলেরা এখন পর্যন্ত সুস্থ রয়েছে। তারপরও তারা ভাসানচর আশ্রয়ন কেন্দ্রে এসে পৌঁছালে প্রথমে তাদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হবে।