বগুড়া অফিস : বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে গতকাল শনিবার ক্যাথল্যাবে স্টেনটিং বা হার্টে রিং পরানো এর উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ডাঃ মীর জামাল উদ্দিন।

এ সময় তিনি বলেন, এখানে হৃদরোগীদের আরো এক ধাপ উন্নত চিকিৎসার দ্বার উন্মোচন হলো। এ ধরনের রোগীদের বিগত সময়ে এনজিওগ্রাম সহ যাবতীয় চিকিৎসা হলেও রিং পরানো হত না। বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সহযোগিতায় বগুড়াসহ উত্তারাঞ্চলের কয়েকটি জেলায় স্টেনটিং এর কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। এতে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ এ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শজিমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মহসিন, শজিমেক অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মো. রেজাউল আলম জুয়েল, জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রফেসর সাবিনা হাসিম, সহযোগি অধ্যাপক ডা. একেএম মনোয়ারুল ইসলাম, রেজিষ্টার ডা. মো. শফিক শাহারিয়ার, শজিমেক কার্ডিওলজি বিভাগীয় প্রধান ডা. শেখ মো. শাহিদুল হক, শজিমেক উপাধ্যক্ষ ডা. সুশান্ত কুমার সরকার, বগুড়া সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সামির হোসেন মিশু, প্রফেসর ডা. মজিবর রহমান সেলিম, ডা, শিবলী হায়দার, ডা. কাজল কুমার কর্মকার, ডা. নুর আলম, ডা, হালিমুর রশীদ, ডা. মনিরুজ্জামান আশরাফ (বিপুল), শজিমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আব্দুল ওয়াদুদ, বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. এটিএম নুরুজ্জামান।

একই সময় শজিমেক কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ফাইজার টিকা কর্মসূচিরও উদ্বোধন করা হয়। এর আগে গত শুক্রবার দুইদিন ব্যাপি কর্মশালা শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং বিআরআইসি ঢাকা যৌথ আয়োজনে সহকারি অধ্যাপক ও কার্ডিওলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ মো. শহিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

কার্ডিওলজি বিভাগের ক্যাথল্যাবে স্টেনটিং বা রিং পরানোর বিষয়ে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য উক্ত কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।