বগুড়া অফিসকাহালু সংবাদদাতা : বগুড়ার কাহালু উপজেলার বরংগাশনি গ্রামের ময়েজের বাঁশঝাড়ে মিললো গলায় ফাঁস লাগানো রশিসহ জিসান (১২) নামের ৫ম শ্রেণির ছাত্রের লাশ। জিসান বরংগাশনি গ্রামের দক্ষিণপাড়ার আব্দুর রহিমের ছেলে ও স্থানীয় উচুলবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদালয়ের ছাত্র ছিল।

শনিবার বিকেল ৪ টার দিকে জিসানের লাশ নিয়ে কাহালু থানায় গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন তাঁর মা নাসিমা বেগম।

নাসিমা বেগম জানান, বেলা ১টার দিকে জিসান বাড়ির বাইরে যায়। এরপর বিকেলে এক বাকপ্রতিবন্ধী ইশরায় নাসিমাকে দেখিয়ে দেয় ওই বাঁশঝাড়। সেখানে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস লাগানো মাটিতে পড়ে থাকা জিসানের লাশ দেখে চিৎকার দেয় নাসিমা।

চিৎকার শুনে গ্রামের লোকজন সেখানে গেলে জিসানের লাশ উদ্ধার করে প্রথমে কাহালু হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর লাশটি থানায় নিয়ে গিয়ে পুলিশকে অবগত করলে বিষয়টি তদন্তে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। নাসিমার ধারনা তাঁর সন্তানকে দুঃস্কৃতকারীরা ফাঁস দিয়ে হত্যা করে বাঁশঝাড়ে লাশ ফেলে দিয়েছে।

কাহালু থানার ওসি আমবার হোসেন জানান, তদন্তের পর ময়নাতদন্তের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।