বকশীগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের বকশীগঞ্জে গত ২৫ সেপ্টেম্বর গারো পাহাড়ি এলাকার বালিঝুড়ি গ্রামের অঞ্জলি রাংসার বাড়িতে ঢুকে তাদের উচ্ছেদ করতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত বিট কর্মকর্তা ও রেঞ্জ কর্মকর্তার অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

বুধবার দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) বকশীগঞ্জ শাখার এর উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয় ।

মিছিলটি বকশীগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে উপজেলা পরিষদের সামনে সমাবেশ করেন তারা।

সমাবেশে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) বকশীগঞ্জ শাখার সভাপতি রাহুল রাকসাম এর সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন আদিবাসী সংগঠন ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অনন্ত মারাক, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস) কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রনু নকরেক, বালিঝুড়ি ভূমি সংরক্ষণ কমিটির সম্পাদক ব্রতীন ম্রং, সোহেল রেমা, বকশীগঞ্জ গারো কো-অপারেটিভ এর চেয়ারম্যান রতন রনোয়ারী, অনুনয় খকসী, তরুন মান্দা, স্থানীয় বাসিন্দা নুরেনা বেগম প্রমুখ।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ শেষে বিভিন্ন দাবি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুন মুন জাহান লিজা বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা জানান, ডুমুরতলা বিট অফিসের বিট কর্মকর্তা জামান মিয়া ও রেঞ্জ কর্মকর্তা রবিউল ইসলামের নির্দেশে গারো পাহাড়ের বালিজুড়ি গ্রামের গারো অঞ্জলি রাংসার বাড়িতে ঢুকে একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালায়। হামলায় অঞ্জলি রাংসার ছেলে শুভ রাংসাকে বেধরক মারপিট করা হয় এবং তার বাড়ি ঘর ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি সম্প্রদায়ের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তাই বিট কর্মকর্তা ও রেঞ্জ কর্মকর্তাও বিচারের দাবি ও তাদের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারক লিপি প্রদান করেন গারো ছাত্র সংগঠন।