বিপুল মিয়া, ফুলবাড়ী ( কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে সংকট সৃষ্টির লক্ষে অবৈধ মজুদ করার অপরাধে এক সার ব্যবসায়ীর গুদাম ও বাড়ী তল্লাশী করে ২৯৯ বস্তা রাসায়নিক সার উদ্ধার করে দাম বৃদ্ধির আগের দামে জনগণের মাঝে বিক্রি করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

এ সময় ওই ব্যবসায়ীর ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বুধবার বিকাল সাড়ে ৩ টার দিকে উপজেলার ফুলবাড়ী সদর ইউনিয়নের চন্দ্রখানা পুলেরপাড় বাজারের আকাশ ফার্টিলাইজার এর সত্বাধিকারী মিজানুর রহমানের গুদাম এবং বাড়ীতে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমন দাসের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালায়। অভিযানের সময় পুলের পাড় বাজারস্থ ওই ব্যবসায়ীর গুদাম থেকে অবৈধভাবে আমদানি করা ৫০ বস্তা টিএসপি, ৫২ বস্তা ডিএপি, বিএডিসির কাগজপত্র বিহীন ৫৫ বস্তা ডিএপি ও ৫২ বস্তা এমওপি সার উদ্ধার করে।

পরে ওই ব্যবসায়ীর বসতবাড়ী তল্লাশী করে শয়ন কক্ষ থেকে দাম বৃদ্ধির আগের কেনা ৯০ বস্তা ইউরিয়া সার উদ্ধার করা হয়। উদ্ধাকৃত সারের আনুমানিক মুল্য ২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় ফুলবাড়ি উপজেলা কৃষি অফিসার নিলুফা ইয়াসমিন সহ উপ- সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমন দাস বলেন, উদ্ধারকৃত সার দাম বৃদ্ধির পুর্ব মুল্যে জনগণের মাঝে বিক্রি করা হয়েছে। এছাড়া দোকানে মেয়াদোত্তীর্ণ সার ও কীটনাশক রাখার অপরাধে ২০০৯ সালের ভোক্তা অধিকার আইনের ৫১ ধারায় ওই ব্যবসায়ীর ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।