উদ্ধারকৃত মাহিন 

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি : কুলাউড়ার কৌলা গ্রামের শিশু মাহিনকে সিঁদ কেটে চুরির ২০ ঘন্টা পর পুলিশ পাশ্ববর্তী জুড়ী উপজেলার কাপনা পাহাড় এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে। বুধবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে তাকে উদ্ধার করে মায়ের কোলে ফিরে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানায়, নিখোঁজ মাহিনের চাচা বাদি হয়ে জুড়ীর সাগরনালের মজনু মিয়ার নাম উল্লেখ করে মামলা দায়েরের পর পুলিশ সেই সূত্র ধরে মাহিনকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। বুধবার রাতেই মাহিনকে তার মায়ের কোলে ফিরে দেওয়া হয়। উদ্ধারকৃত মাহিন পুলিশকে জানিয়েছে, সাগরনালের মজনু মিয়া তাকে অপহরণ করেছিলো। সে তাকে চিনতে পেরেছে। পুলিশ মজনু মিয়াকে আটকের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে শহরের নিকটবর্তী গ্রাম কৌলা গ্রামে টিনশেড ঘরে সিঁদ কেটে মায়ের সঙ্গে ঘুমিয়ে থাকা মাহবুবুল ইসলাম মাহিন নামে (বয়স সাড়ে ৩ বছর) শুকে তুলে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

এদিকে ঘটনার পর মাহিনের নানি রুশনা বেগম সাংবাদিকদেরকে অভিযোগ করে বলেছিলেন, ‘তার পিতার বাড়ি জুড়ী উপজেলার সাগরনালে। সেখানে তার নিকটাত্মীয়দের সাথে জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে তিনি কোর্টে মামলা চালাচ্ছেন। আর তার মামলার বিবাদী মজনু মিয়া ঘটনার ২ দিন আগে আমাদের বাড়ীতে এসেছে। মজনুই তার নাতিকে অপহরণ করেছে।’ নানির আশংকাই অবশেষে সত্য বলে প্রমাণিত হল।

মাহিনের নানি রুশনা বেগম বলেন, এখন মজনুকে গ্রেফতার করা হলেই আমার নাতিকে অপহরণের মূূল কারণ জানা যাবে।

শিশু মাহিনের উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করতে প্রযুক্তি ও মেধার সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে সফল হয়েছে। অবশেষে অক্ষত অবস্থায় মাহিনকে তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিতে পেরেছি।