এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর পোরশায় প্রেমিক-প্রেমিকার অজানার উদ্দেশ্য পালিয়েও শেষ রক্ষা হলো না। প্রেমিকার পিতার অপহরণের মামলায় এখন জেলখানায় প্রেমিক।

অপহরণ মামলার পরে অপহৃত কলেজ ছাত্রী স্বপ্না আকতার (ছদ্মনাম) (১৭)কে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

এ সময় অপহরণকারী বড়গ্রাম কাইয়াপাড়ার নুর ইসলামের ছেলে রাসেলকে (১৯) গ্রেফতার করা হয়েছে।

ও-ই প্রেমিকা কলেজ ছাত্রী উপজেলার বানইল এলাকার সাদেকুল ইসলামের মেয়ে এবং সাপাহার চাঁন মোহাম্মদ ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি ১ম বর্ষের ছাত্রী। তবে গুঞ্জন রয়েছে কলেজছাত্রীর সাথে অপহরণের দায়ে মিথ্যা মামলায় গ্রেফতার যুবকের অনেক আগে থেকেই প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে।

পোরশা থানা পরিদর্শক শফিউল আজম খাঁন জানান, রোববার সকাল ৯টায় ওই মেয়েটি কলেজে যাওয়ার জন্য সরাইগাছি মোড়ে বাসের (গাড়ির) জন্য অপেক্ষা করছিল। এ সময় রাসেল কলেজ ছাত্রীকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ অবস্থায় মেয়ের পিতা বাদি হয়ে একই দিন রাত সাড়ে ১১টায় থানায় এসে অপহরণের মামলা দায়ের করেন।

মামলার পরে সাপাহার সার্কেল এএসপি বিনয় কুমারের দিক নির্দেশনায় থানা পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধারের জন্য তৎপরতা শুরু করে। পরে তার নেতৃত্বে এক অভিযানের মাধ্যমে তদন্তকারী কর্মকর্তা উপপরিদর্শক আমরিন রাশাদ, সহকারী উপপরিদর্শক গোলাম রব্বানী ও মোস্তাফিজুর রহমান ও পুলিশ কনস্টেবল রাবেয়ার সহযোগীতায় সোমবার সকাল ৭টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার বালুচর কটুবাজার এলাকা থেকে অপহরণকারী রাসেলকে আটক এবং মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

সোমবার অপহরণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বিকালে রাসেলকে আদালতের মাধ্যমে জেলখানায় পাঠানো হয়েছে। অপহৃত ছাত্রীকে ২২ধারায় জবানবন্দী নেয়ার জন্য আদালত থেকে থানায় নেয়া হয়েছে বলেও তিনি আরো জানান।