এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, নওগাঁ : নওগাঁর পোরশায় মাহমুদা খাতুন (১৮) নামের এক হাফেজার গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। নিহত মাহমুদা খাতুন উপজেলার ছাওড় ইউপির জাফরপুর গ্রামের নুরুল হকের মেয়ে।

স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা যায়, মাহমুদা খাতুন স্থানীয় একটি মহিলা মাদরাসা থেকে ১ বছর পূর্বে কোরআনের হাফেজা হয়ে এসেছেন। এরমধ্যে তার পরিবারের লোকজন বিয়ে দেওয়ার জন্য পাত্র দেখতে ছিলেন। হঠাৎ করে ঈদের দিন সন্ধ্যার পর নিজ শয়ন কক্ষে সকলের অজান্তে তিনি গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে পরিবারের লোকজন তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে থানায় খবর দিলে থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

সত্যতা নিশ্চিত করে পোরশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জহুরুল হক জানান, সংবাদ পেয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। কি কারণে সে আত্মহত্যা করেছে এটা জানা যায়নি। তবে তার বাবা আমাদের বলেন পরিবার থেকে বিয়ে দেওয়ার জন্য পাত্র দেখা হচ্ছিল। এরমধ্যে সে আত্মহত্যা করেছে। ওসি আরও বলেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।