জাকির হোসেন, পীরগঞ্জ (ঠাকুরগাঁও) : একদিকে প্রচন্ড খরতাপ অন্যদিক বিদ্যুতের অসহনীয় লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের সাধারণ মানুষ। ঘন্টায় ঘন্টায় বিদ্যুতের আসা-যাওয়ার লুকোচুরি খেলায় চরম বেকায়দায় পড়েছেন এই উপজেলার মানুষজন। বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে আন্তর্জাতিক বাজারে গ্যাস ও তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদনে খানিকটা ব্যাহত হচ্ছে।

বেশ কিছুদিন ধরেই ঠাকুরগাঁও জেলায় এমন প্রচন্ড খরতাপ বিরাজ করছে। এ কারণে ভ্যাপসা গরমে মানুষের জীবন অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। অপরদিকে গত কয়েকদিন ধরে বাড়ছে লোডশেডিং। ঘন্টায় ঘণ্টায় লোডশেডিং এর কারনে মিল কারখানায় ঠিকমতো কাজ পরিচালিত হচ্ছে না।। শ্রমিকরা কাজে আসলেও বিদ্যুতের অভাবে শ্রমিকদের বসে থাকতে হচ্ছে। অপরদিকে সন্ধ্যার পর এ অবস্থা আরো কঠিন আকার ধারণ করে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, ২৪ ঘন্টার মধ্যে ৮ থেকে ১০ ঘন্টায় বিদ্যুৎ থাকে না। শিক্ষার্থীরা যেমন লেখাপড়া করতে পার না তেমনি বয়স্ক লোকজন প্রচন্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

পল্লী বিদ্যুতের বিদ্যুৎ সরবরাহে চলছে চরম ভেলকিবাজি। বেশ কিছুদিন ধরেই চলে এমন ভেলকিবাজি।

বিশেষ করে গত কয়েদিন ঘনঘন লোডশেডিংয়ে ও প্রচন্ড- গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। দুর্ভোগে পড়েছেন জেলার ছোট-বড় বয়ষ্ক শ্রমজীবী মানুষ। দিন রাত এ লোডশেডিংয়ে জেলা উপজলা শহরসহ গ্রামঅঞ্চলের শিশু ও বৃদ্ধ মানুষ অসহ্য যন্ত্রণায় রয়েছে।

মধ্যরাতের লোডশেডিংয়ে প্রচন্ড গরমে ঘরে ঘরে শোনা যায় শিশুদের কান্নার আওয়াজ। এ নিয়ে জনমনে ক্ষোভের সষ্টি হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারা বলছেন,ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব আত্মর্জাতিক বাজারে গ্যাস ও তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বিদ্যুৎ উৎপাদনে খানিকটা ব্যাহত হচ্ছে।

উপজেলার বর্থপালিগাঁও গ্রামের আব্দুল করিম বলেন, এত লোডশেডিং আর ভালো লাগেনা গরমে ছোট বাচ্চা ও বয়স্ক লোকদের কষ্ট আর দেখে ভালো লাগছে না।

জেলা পিডিবির কর্তৃপক্ষ বলছেন- ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মধ্যে রাত ও দিন ২১ মেগাওয়ার্ট করে বিদ্যুতের চাহিদা থাকলেও তা পাওয়া যাচ্ছেনা। চাহিদা মেটাতে ৩৫% লোডশেডিং দেয়া হচ্ছে। অপরদিকে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি কতৃপক্ষ বলছেন,জেলায় বিদ্যুতের চাহিদা প্রায় ৫০ মেগাওয়াট। সরবরাহ মিলছে মাত্র ৩০ মেগাওয়াট। চাহিদার তুলনায় বিদ্যুৎ সরবরাহ কম পাওয়ায় লোডশেডিং দেয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জি এম আবু আশরাফ সালেহ দ্রুত সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, শীঘ্রই এই সমস্যার সমাধান হবে।