বন্যা তালুকদার, পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি : বরগুনার পাথরঘাটায় রাজিয়া আক্তার (১৮) নামে এক যুবতী ‌গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

১৪ অক্টোবর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পৌর শহরের বিআরটিসি কাউন্টার সংলগ্ন মৃত কাদেরের ছেলে নুরুজ্জামান সাগরের বসতঘরে এ ঘটনা ঘটে। নুরুজ্জামান সাগর রাজিয়ার সম্পর্কে খালু হন বলে জানা গেছে।

মৃত রাজিয়ার বাড়ি বরগুনা জেলার তালতলী থানার সোনাকাটা ইউনিয়নের লাউপাড়া গ্রামে।‌ তার বাবার নাম ফজলুল হক।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে বলা হয়েছে,বসত ঘরের মাঝখানের রুমের দরজা বন্ধ করে ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস লাগায় সে । পরবর্তীতে রাজিয়ার খালা লাবনী আক্তার স্কুল হতে তার বাচ্চা নিয়ে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ পায় এবং পার্শ্ববর্তী লোকজনের সহায়তায় হাতুড়ি দিয়ে দরজা ভেংগে ভিকটিমকে উদ্ধার করে । তাৎক্ষণিক তাকে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। উল্লেখ থাকে যে, ভিকটিম মোসাঃ রাজিয়া আক্তার দের মাস পূর্বে নিজ বাড়ি তালতলী হতে পাথরঘাটার ৪ ন ওয়ার্ডের এই খালা লাবনী আক্তার এর বাসায় বেড়াতে আসে।

পাথরঘাটা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা ‌নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন,মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত প্রকৃত রহস্য জানা যাবে না অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে