এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ী পাংশার হাবাসপুরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মোড়ক বিহীন এবং ভেজাল মিশ্রিত ও নিষিদ্ধ কেমিক্যাল ব্যবহার করে গুড় প্রস্তুতের দায়ে একটি অনুনোমদিত গুড়ের কারখানায় সিলগালা করে দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

এ সময় কারখানা থেকে প্রায় ২০০ টিনের কৌটা বোঝাই নিষিদ্ধ কেমিক্যাল, ১০০ মাটির কোলা ভর্তি প্রস্তুতকৃত ভেজাল গুড় ও ৩৪ বস্তা চিনি জব্দ করা হয়।

পড়ে জব্দকৃত মালামাল বাজেয়াপ্ত এবং ভেজাল কেমিক্যাল ধ্বংস করা হয়েছে। সেই সাথে কারখানার মালিক শেখ আলমাছ (৫১)কে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৩৭ ও ৪২ ধারায় ১৫ দিনের বিনাশ্রম করাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৫ দিনের বিনাশ্রম করাদন্ডাদেশ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের ডাঙ্গীপাড়ার ওই অনুনোমদিত গুড়ের কারখানায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন পাংশার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মাসুদুর রহমান রুবেল।

দন্ডপ্রাপ্ত শেখ আলমাছ ওই এলাকার মৃত আছর উদ্দিনের ছেলে।

জানা গেছে, দুপুর পর্যন্ত ডাঙ্গীপাড়ার একটি গুড়ের কারখানায় পাংশা থানা পুলিশের অভিযানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে মোড়ক বিহীন, ভেজাল মিশ্রিত ও নিষিদ্ধ কেমিক্যাল ব্যবহার করে গুড় প্রস্তুতের দায়ে কারখানার মালিক শেখ আলমাছকে আটক করে।

সে সময় জব্দকৃত মালামাল বাজেয়াপ্ত এবং ভেজাল কেমিক্যাল ধ্বংস ও কারখানা সিলগালা করা হয়। জব্দকৃত অবশিষ্ট মালামাল স্থানীয় ইউপি সদস্য রুহুল আমিনের জিম্মায় দেয়া হয়।