মেহেরপুর প্রতিনিধি : ২য় ধাপের ইউপি নির্বাচনে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাথুলী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় দুই মেম্বর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে দুই সহোদর নিহতের মামলায় মেহেরপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন ৫৭ জন আসামী। এ মামলায় জেল হাজতে রয়েছে আরো ৭ জন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তারা চীপজুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিরিন নাহারের আদালতে হাজির হয়ে জামিন প্রার্থন করেন। বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন। বিকেলে তাদের জেলহাজতে নেওয়া হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মেহেরপুর গাংনী উপজেলায় ২য় ধাপে কাথুলি ইউপি নির্বাচনে লক্ষীনারায়নপুর ধলায় সদস্য পদে প্রতিদ্ব›দ্বীতা করছিলেন বর্তমান মেম্বর আজমাইন হোসেন টুটুল ও উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিয়ার রহমান।

২০২১ সালের ৮ নভেম্বর নির্বাচনী প্রচারনায় নামেন দুই প্রার্থীর সমর্থকরা। প্রচারণাকে কেন্দ্র করে এ সময় তাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় আজমাইন হোসেন টুটুল গ্রুপের দুই সহোদর জাহারুল ইসলাম ও সাহাদুল ইসলাম।

এ সময় আহত হয় আরো ১৫ জন। ৯ নভেম্বর নিহতদের ভাই লাল্টু বিশ্বাস বাদি হয়ে আতিয়ার রহমানকে প্রধান আসামী করে গাংনী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার হয় ৪ জন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ৫৭ জন আসামী আদালতে আত্মসমর্পণ করলে জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।