খোলাবার্তা২৪ ডেস্ক : করোনার কারণে দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর থাই পর্যটন কেন্দ্রগুলো খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে থাইল্যান্ড। একই সাথে করোনার পুরো ডোজ টিকা নেয়া দর্শনার্থীদের জন্য কোয়ারেন্টিনের বাধ্য-বাধকতাও তুলে নেয়ার পরিকল্পনা করেছে থাইল্যান্ড।

করোনায় পর্যুদস্ত পর্যটন খাতকে চাঙ্গা করার চেষ্টায় দেশটির সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে।

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশ নেপাল ব্যাংককসহ ক্রবি, হুয়া হিন, পাতায়া এবং কোহ পায়াম পর্যটন কেন্দ্র নভেম্বরে পুনরায় খুলে দেয়ার পরিকল্পনা করেছে। এর আগে জুলাই থেকে ফুকেট ও সামুই দ্বীপপুঞ্জ খুলে দেয়া হয়।
সেন্টার ফর কোভিড-১৯ সিচুয়েশান এডমিনিস্ট্রেশন এ কথা জানিয়েছে।

থাইল্যান্ডের অর্থনীতি প্রধানত পর্যটন শিল্প নির্ভর। করোনার অভিঘাতে এ খাত অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ক্ষতি কাটাতে দেশটি মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

থাইল্যান্ডে ২০১৯ সালে প্রায় চারকোটি পর্যটক ভ্রমণে আসে। ২০২০ সালে তার সংখ্যা নেমে দাঁড়ায় ৬৭ লাখে।