বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ ও বায়তুশ শরফ আনজুমনে নওজোয়ান বাংলাদেশ রাউজান উপজেলা শাখার সার্বিক ব্যবস্থাপনায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন নবী (সাঃ) মাহফিল রাউজানস্থ স্থানীয় কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ রাউজান উপজেলা শাখার সভাপতি মাষ্টার মোহাম্মদ শাহ আলমের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান বায়তুশ শরফের উপদেষ্টা আলহাজ্ব একেএম এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, প্রধান বক্তা ছিলেন বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন বায়তুশ শরফ মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশ এর মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুর রশীদ নুরী।

বিশেষ বক্তা ছিলেন বায়তুশ শরফ আনজুমনে নওজোয়ান বাংলাদেশ সভাপতি বিশিষ্ট মোফাচ্ছিরে কোরআন হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, খ্যাতিমান মুফাসিসর হাফেজ মাওলানা মহি উদ্দীন মাহবুব, বুলবুলে বায়তুশ শরফ মাওলানা কাজী শিহাব উদ্দীন।

উক্ত মাহফিলে আরও বক্তব্য রাখেন মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশ রাউজান উপজেলার সম্মানিত সভাপতি কাজী মাওলানা মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ নাছির উদ্দীন।

অন্যান্য মেহমান ও দায়িত্বশীলদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট আবদুর রহিম, আনজুমনে নওজোয়ান এর উপদেষ্টা জে কে হাসপাতালের পরিচালক জনাব হাবিব খান,খতীব আলহাজ্ব মাওলানা হাবিবুর রহমান, অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুল মান্নান, মাওলানা আবদুল কাদের, জাবের হোসেন মিন্টু, মোহাম্মদ কামাল উদ্দীন, মোহাম্মদ তৌহিদুল আনোয়ার চৌধুরীর, আলহাজ্ব সামশুল আলম সওদাগর, সাদাত উল্লাহ চৌধুরী, রফিকুল ইসলাম তালুকদার, সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম (বুলু), প্রচার সম্পাদক মোহাম্মদ আবদুস শুক্কুর, মোহাম্মদ আবুল হাসেম, তসলিম উদদীন, মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, মোহাম্মদ রাশেদ, মোহাম্মদ আবুল মনসুর, মুহাম্মদ ইখলাস উদদীন, আবদুস শুক্কুর, মুহাম্মদ সরোয়ার কামাল, মোহাম্মদ হোসাইন, জাহাঙ্গীর আলম, আবদুল হামিদ, আবদুল হামিদ, প্রবাসী সদস্য তসলিম উদদীন, মোহাম্মদ ফোরকান। আনজুমনে নওজোয়ান সভাপতি শওকত আকবর চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ওমর ফারুক, মোহাম্মদ ইকবাল, মাষ্টার রাশেদ হোসাইন, মোহাম্মদ ইকবাল, রাউজান উপজেলার বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ ও বায়তুশ শরফ আনজুমনে নওজোয়ান -এর সকল শাখার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সদস্য সহ এলাকার বিপুল সংখ্যক মুসল্লিগন উপস্থিত ছিলেন।

মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কে এম এহেছানুল হায়দার চৌধুরী (বাবুল) বলেন, বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ মসজিদ ভিত্তিক একটি আধ্যাত্মিক ও মানবসেবামূলক অরাজনৈতিক সংগঠন, ধর্ম ও কর্মের সমন্বয়ে একজন মানুষকে তরীকতের অনুসৃত পর্যায়ে মানবীয় গুণাবলি অর্জনের মাধ্যমে খাঁটি মুমিন বান্দারুপে গড়ে তোলাই হচ্ছে বায়তুশ শরফ এর লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

প্রধান বক্তা মাওলানা মামুনুর রশীদ নূরী বলেন, ইসলাম পবিত্র ধর্ম। চিন্তায়, মননে, বিশ্বাস ও কর্মে সব ক্ষেত্রেই এর পরিধি বিস্তৃত। শারীরিক, মানসিক, আর্থিক ও সামাজিক সর্ব পর্যায়ে এটি পরিব্যাপ্ত। তিনি বলেন, প্রেম সৃষ্টির অনুপ্রেরণা। প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে মহান আল্লাহ তাআলা কুল মাখলুকাত সৃজন করেছেন। প্রেমেই আনুগত্য, আনুগত্যই ইবাদত। প্রেম আল্লাহর প্রতি, রাসুল (সা.) এর প্রতি ও সমগ্র সৃষ্টির প্রতি। তিনি আরো বলেন, নবীজি (সা.) এর ভালোবাসা মুমিনের ইমান, সুন্নাতের অনুসরণই ভালোবাসার প্রমাণ।

তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা:) বলেছেন, ‘যে আমার সুন্নাতকে ভালোবাসে, সে অবশ্যই আমাকে ভালোবাসে; আর যে আমাকে ভালোবাসে সে জান্নাতে আমার সঙ্গেই থাকবে। আর যে আমার সুন্নাতকে জিন্দা করবে সে জান্নাতে আমার সঙ্গেই থাকবে। তিনি আরও বলেন, যার মধ্যে রাসুলের প্রেম নেই তার ঈমানও নেই।

কোরআনে উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, তোমাদের কেউ ততক্ষণ পর্যন্ত পূর্ণাঙ্গ মুমিন হবে না, যতক্ষণ না আমি (নবীজি সা:) তার নিকট তার সন্তান অপেক্ষা, তার পিতা অপেক্ষা এবং সকল মানুষ অপেক্ষা বেশি প্রিয় না হই।

সভাপতির বক্তব্যে মাষ্টার শাহ আলম রাউজান বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ ও আনজুৃনে নাওজোয়ানসহ এলাকাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। – বিজ্ঞপ্তি