নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামের বুড়ইল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে এলাকাবাসী। গতকাল শনিবার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, উপজেলার ৫ টি ইউনিয়নের মধ্যে ৪ টিতে তফসিল ঘোষণা করলেও বুড়ইল ইউনিয়ন পরিষদ বাদ রাখা হয়েছে। এতে স্থানীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী, সদস্য প্রার্থী ও জনসাধারণের মধ্যে বিরুপ প্রভাব পড়ছে।

সংবাদ সম্মেলনে এলাকাবাসীর পক্ষে সাবেক ইউপি সদস্য আফজাল হোসেন পোদ্দার জানান, একটি পৌরসভা ও ৫ টি ইউনিয়ন পরিষদ নিয়ে নন্দীগ্রাম উপজেলা গঠিত। এই ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে বুড়ইল ইউনিয়ন বাদ রেখে বাকী ৪ টি ইউনিয়ন পরিষদের নিবাচনের ভোট গ্রহনের জন্য চতুর্থ ধাপে তফসিল ঘোষণা করেছে নিবাচন কমিশন। কোন কারণ ছাড়াই বুড়ইল ইউনিয়ন পরিষদের নিবাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়নি।

বগুড়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়, জেলা নিবাচন কমকর্তা ও উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ে খোঁজ নিয়েও তফসিল না হওয়ার কোন কারণ জানা যায়নি।তবে, কতিপয় স্বার্থসেবী মহল নিজেদের স্বার্থ হাসিলের জন্য কুটকৌশলের আশ্রয় গ্রহন করে তারা নির্বাচন বন্ধ করার পায়তারা করছে।

বুড়ইল ইউনিয়ন বাসী তা কোন ভাবেই মেনে নিবে না, জনস্বার্থে ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে তরান্বিত করতে এখানে নির্বাচন দেওয়া বিশেষ প্রয়োজন।

তিনি আরও বলেন, বুড়ইল ইউনিয়ন পরিষদে গত ২০১৬ সালের ৮ আগস্টে ভোট গ্রহন করা হয়েছে। সেই তারিখে অন্য চারটি ইউনিয়নেরও ভোট গ্রহন করা হয়েছে। বর্তমান এ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের মেয়াদত্তীর্ণ হয়ে গেছে। অতি দ্রুত বুড়ইল ইউনিয়ন পরিষদের নিবাচনের তফসিল ঘোষণা করার দাবি জানাচ্ছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থী জিয়াউর রহমান (জিয়া) মেম্বার প্রার্থী একাব্বর হোসেন পুটু, আনছার উদ্দিন সরকার, আব্দুল আলিম, আব্দুর রাজ্জাক, বাচ্চু মিয়া, ফেরদাউস আলম প্রমুখ।