নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে প্রায় ১৮ লাখ টাকা মূল্যের ১৮০ (একশত আশি) গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১২। এ সময় শীর্ষ মাদক কারবারি চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাজমুস সাদাত মুনকে (৩৯) হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থানা এলাকার দারিয়াপুরের একেএম কামরুজ্জামানের ছেলে। মাদক কারবারি নিজেকে বিভিন্ন অনলাইন গণমাধ্যমের কর্মী দাবি করলেও কোনো প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র দেখাতে পারেনি।

সোমবার নন্দীগ্রাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের মথুরাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটকের পর দেহ তল্লাশি করে হেরোইনসহ দুটি মোবাইল ফোন ও নগদ ৫ হাজার ৮শ’ টাকা জব্দ করা হয়। সোমবার রাতেই তাকে নন্দীগ্রাম থানায় হস্তান্তর করে তার বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেন সিপিসি-৩, রাব-১২ বগুড়ার উপ-সহকারি পরিচালক (ডিএডি) মো. জিয়াউর রহমান।

মঙ্গলবার গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারি নাজমুস সাদাত মুনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, সোমবার র‌্যাব-১২ বগুড়ার স্পেশাল কোম্পানীর একটি আভিযানিক দল বগুড়া ও নাটোর সীমান্তবর্তী মহাসড়কের নন্দীগ্রাম উপজেলার মথুরাপুর গ্রামস্থ সিংড়া সীমানা এলাকায় টহল ডিউটি করছিলো। র‌্যাবের কাছে তথ্য ছিল, মাদক কারবারি নাজমুস সাদাত মুন মাদকদ্রব্য হেরোইন নিজের হেফাজতে রেখে বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারি পালানোর চেষ্টায় ব্যর্থ হয়। আটকের পর তার দেহ তল্লাশি করে পরণের জ্যাকেটের পকেট থেকে ১৮০গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করে র‌্যাব।