ফজলুর রহমান, নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার মুলকুড়ি গ্রামে এক বিঘা জমিতে রোপণ করা করলা ও বেগুন গাছ উপড়ে ফেলেছে দূর্বৃত্তরা। করলা চাষির অভিযোগ, পূর্ব শত্রুতার জের ধরেই গাছগুলো উপড়ে ফেলা হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের মুলকুড়ি গ্রামের হরিপদের ছেলে চাষি কাজল কুমার। তিনি গ্রামের মাঠে অন্যের এক বিঘা জমি বর্গা নেন। সেই জমিতে করলা ও বেগুন গাছ রোপণ করেন। অধিকাংশ গাছে ফল এসেছে।

প্রতিদিনের মতো রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত ক্ষেত পরিচর্যা করছিলেন তিনি। কিন্ত রাতের আধারে কে বা কাহারা এক বিঘা জমির সব গাছ উপড়ে ফেলে দেয়। সকালে চাষি কাজল কুমার জানতে পারেন, তার ক্ষেতের সব করলার ও কিছু বেগুন গাছ নষ্ট করে ফেলা হয়েছে।

চাষী কাজল কুমার বলেন, আমি গরিব কৃষক। অনেক ধার-দেনা করে অন্যের এক বিঘা জমি বর্গা নিয়ে করলা বেগুন চাষ করেছি। আমার যা পুজিঁ ছিল ওই ক্ষেতেই লাগিয়েছি। আমার করলা ক্ষেতে পূর্ব শত্রুতার জেরেই রোপণকৃত গাছগুলো উপরে ফেলেছে। এতে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। করলা বিক্রি করে দেনার টাকা পরিশোধ করার কথা ছিলো। এখন আমি কি করবো ভেবে পাচ্ছিনা।

নন্দীগ্রাম উপজেলা কৃষি অফিসার আদনান বাবু বলেন, কে বা কাহারা কৃষক কাজলের করলা ও বেগুন গাছ উপরে ফেলেছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষককে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

পাশাপাশি কৃষি বিভাগ থেকে ওই কৃষককে কৃষি প্রণোদনা দিয়ে সহযোগীতা করা হবে।

এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ ওই ঘটনায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।