নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জোর করে বিবাদপূর্ণ জায়গা থেকে গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে প্রভাবশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৩নং ভাটরা ইউনিয়নের মাড়িয়া গ্রামের মোছাঃ হাছনা বানু গত ২৬ বছর আগে ২১৫ দাগের সাড়ে ৬০ শতক জমি একই গ্রামের মৃতঃ আব্দুর রহমানের মেয়ে মনোয়ারার নিকট থেকে ক্রয় করে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগিয়ে ভোগ দখল করে আসছিলো। এমতাবস্থায় দাতার ভাই আব্দুর রশিদ, আনসার আলী, আমজাদ আলী দীর্ঘদিন পর উক্ত জায়গাটি তাদের দাবি করে জোরপূর্বক জায়গাটি দখল করতে গেলে জায়গার মালিক হাসনা বানু দখলে বাধা দিয়ে আদালতে একটি মামলা দায়ের করে।

মামলা দায়ের করার পর উক্ত জায়গায় আদালত নিষেধাজ্ঞা জারি করে। মামলা চলাকালীন গত ২০১৯ সালের ৫ই ডিসেম্বর দাতার ভাইয়েরা আবারো জোরপূর্বক ১৫টি গাছ কেটে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে আরো একটি মামলা চলমান আছে বলে অভিযোগ সূত্রে জানা যায়।

এদিকে মামলা ও নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন সময়ে দাতার ভাইয়েরা গত ৩০শে সেপ্টেম্বর আবারো জোরপূর্বক ১০ হাজার টাকা মূল্যের আরো একটি গাছ কেটে নিয়ে বিক্রি করলে হাসনা বানু নন্দীগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।

এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।