নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে অতিমাত্রায় কীটনাশক প্রয়োগে কৃষকের ফসল (ধানগাছ) পুড়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ৪নং ইউনিয়নের নিমাইদিঘী গ্রামের আলহাজ্ব মো: সামির উদ্দিন মাস্টারের ১ বিঘা জমির ফসল (ধান) পুড়ে একেবারে নষ্ট হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে জমির মালিকের সাথে কথা বললে তিনি জানান, গত শুক্রবার জমিতে ভুলবশত অতিমাত্রায় কীটনাশক প্রয়োগের ফলে এবং সেই সাথে সূর্যের তাপের কারণে তার জমির সব ফসল (ধান) নষ্ট হয়ে গেছে।

তিনি আরো জানান, তার জমির ফসল (ধান) এমনভাবে নষ্ট হয়ে গেছে যে, তাতে আর ফলন হবার সম্ভাবনা নেই। তবে তার এই ক্ষতির জন্য নিজেকেই দায়ী করছেন জমির মালিক আলহাজ্ব সামির উদ্দিন মাস্টার।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার আদনান বাবুর সাথে কথা বললে তিনি জানান, ফসলে কীটনাশক প্রয়োগের ক্ষেত্রে সঠিক ঔষধ, সঠিক মাত্রা, সঠিক সময় এবং সঠিক নিয়ম মানা প্রয়োজন। অন্যথায় ফসলের ক্ষতির সম্ভবনা রয়ে যায়। যদি কেউ ভুল বসত অতিরিক্ত কীটনাশক প্রয়োগ করে ফেলেন তাহলে তৎক্ষণাৎ নরমাল পানি স্প্রে করার পরামর্শ দেন তিনি।

তবে অতিরিক্ত কীটনাশক প্রয়োগের পর দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলে এই পদ্ধতি কাজে নাও লাগতে পারে। এ জন্য ফসলে কীটনাশক প্রয়োগের সময় সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দেন উপজেলা কৃষি অফিসার আদনান বাবু।