নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর মান্দায় সরকারি সম্পত্তি লিজ নিয়ে বিপাকে পড়েছেন রুবেল হোসেন নামে এক অসহায় কৃষক এবং তার পরিবারের লোকজন। তিনি ভারশোঁ ইউনিয়নের নিচ মহানগর গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে।

তিনি জানান, মহানগর মৌজায় ৫০ শতক সম্পত্তি লিজ নিয়ে অদ্যবধি ভোগদখল করে আসছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি অনুষ্ঠিতব্য ভারশোঁ ইউপি নির্বাচনকে ইস্যু করে ওই এলাকার প্রভাবশালী লোকজনের ইন্ধনে প্রতিপক্ষের রফিকুল গংরা দীর্ঘদিন যাবৎ তাদের ভোগদখলীয় সম্পত্তিটি দখলে নেওয়ার পাঁয়তারা করে আসছিলো।

এরই জের ধরে গত সোমবার দুপুরে তাদের লিজকৃত জমিতে রোপিত বোরো ধান জোরপূর্বকভাবে কেটে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ওইসময় ভুক্তভোগী কৃষক রুবেল হোসেন এবং তার পরিবারের লোকজন প্রতিহত করতে গেলে উভয় পক্ষের লোকজনের সাথে সংঘর্ষ হয়।

এতে উভয় পক্ষের দু’জন আহত হন এবং ওই রাতেই রফিকুল ইসলাম গ্রুপের লোকজন রুবেল হোসেনসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে মান্দা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকে রুবেল হোসেন এবং তার পরিবারের লোকজন বাড়ি থেকে দূরে সরে ছিলেন।

এই সুযোগে প্রতিপক্ষের লোকজন রুবেলের স্ত্রী খাদিজার উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে আহত করে বিবাবমান জমির ধানসহ তাদের বাড়ির উঠানে রাখা ৫ বিঘা কন্ট্রাককৃত জমির ধান, ২টি পলিথিন, ৩টি নেট, ৪টি টির্পল এবং বাড়িতে গচ্ছিত রাখা প্রায় ৪০ হাচার টাকা- লুটপাট করে নিয়ে যান বলে জানান ভুক্তভোগী কৃষক রুবেল হোসেন। ওইদিন সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

পরবর্তীতে স্থানীয়রা রুবেলের স্ত্রী খাদিজা (৩০) কে উদ্ধার করে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীরা জামিনে বেরিয়ে এসেও জীবনের নিরাপত্তাহীনতার শঙ্কা করছেন। এমতাবস্থায় নিরুপায় হয়ে ন্যায় বিচারের আশায় দ্বারে-দ্বারে ঘুরেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় চরম হতাশায় ভ‚গছেন তারা।

এ বিষয়ে প্রতিপক্ষের রফিকুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
মান্দা থানার ওসি- তদন্ত মেহেদী মাসুদ বলেন বলেন, সংবাদ পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। ভূক্তভোগীদের লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিলো।