বগুড়া অফিসধুনট সংবাদদাতা : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় পৃথক ঘটনায় ৪জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে নারীসহ ২ ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ময়না তদন্তের জন্য ঝুলন্ত লাশ ২টি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

ঝলুন্ত অবস্থায় উদ্ধার হওয়া লাশ ২টি হলো, কালেরপাড়া ইউনিয়নের আনারপুর গ্রামের মৃত জাহিদুল বেপারি স্ত্রী মনজেরা বেওয়া (৪২) এবং চৌকিবাড়ি ইউনিয়নের পাঁচথুপি গ্রামের জয়নাল আবেদিনের ছেলে হাফিজুর রহমান (৩২)।

এ ছাড়া পানিতে ডুবে মারা গেছে উপজেলার বেড়েরবাড়ী অকন্দ পাড়ার শাহ অলম আকন্দের মেয়ে দেড় বছর বয়সী রাবেয়া আক্তার সোহানী ও ঘুমের বড়ি খেয়ে ঝিনাই উত্তরপাড়ার মৃত গোফ্ফার মন্ডলের পুত্র জাহিদুল ইসলাম (৪২)।

থানা পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, স্বামীর মৃত্যুর পর দুই ছেলে নিয়ে স্বামীর বাড়িতেই বসবাস করতেন মনজেরা বেওয়া। সোমবার মধ্যরাতে নিজ শয়ন ঘরের তীরের (আড়া) সাথে গলায় ওড়না দিয়ে ফাঁস দেন তিনি। বিষয়টি টের পেয়ে পরিবারের সদস্যরা থানা পুলিশকে খবর দেন। মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে ওই ঘর থেকে মনজেরার ঝুলন্ত অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তার মৃত্যুর কারন জানা যায়নি।

অন্য দিকে সোমবার রাত ১০টার দিকে বাড়ি থেকে বের হন হাফিজুর রহমান। মঙ্গলবার সকাল ৬টার দিকে বাড়ি থেকে প্রায় ৫০০ গজ দুরে একটি আম গাছের সাথে তাকে গলায় দড়ি পেচানো ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ সকাল ১১টার দিকে ওই আম গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, মৃত দুই ব্যক্তির পরিবারের কোন অভিযোগ নেই। থানায় সাধারণ ডাইরী করে দুইটি মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অপরদিকে বগুড়া সদরে প্রেমঘটিত কারণে মতিউর রহমান(২৬) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার সদরের মালতীনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আত্মহননকারী মতিউর পাবনার সাথিয়া উপজেলার ফকিরপাড়া এলাকার জাকির হোসেনের ছেলে।

তিনি বগুড়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকের সহকারী হিসেবে কাজ করতেন এবং মালতীনগর এলাকায় একটি ছাত্রাবাসে থাকতেন। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ওসি সেলিম রেজা।

ওসি সেলিম রেজা জানান, প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, প্রেমঘটিত কারণে মতিউর মেসের নিজ রুমে বিষাক্ত ইনজেকশন নিজের শরীরে পুশ করে। পরে মেসের লোকজন বুঝতে পেরে তাকে দুু্রুত উদ্ধার করে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মতিউরকে মৃত ঘোষণা করেন । এ ঘটনায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয়েছে।