এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতি‌নি‌ধি : থ্রি-হুইলা‌রের যাত্রী ও ব‌্যক্তিগত ছোট গাড়ীর চা‌পে ঈদ শে‌ষে কর্মস্থ‌লগামী বাসযাত্রী‌দের দৌলতদিয়া ঘাটে ভোগা‌ন্তি চরমে উঠেছে। ঘন্টার পর ঘন্টা অ‌পেক্ষা ক‌রে ফে‌রির নাগাল পা‌চ্ছেন না দে‌শের বি‌ভিন্ন স্থান থে‌কে আসা বাসযাত্রীরা।

শুক্রবার দুপুরের পর থে‌কে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তে এই ভোগা‌ন্তি সৃ‌ষ্টি হয়। দুপু‌রের পর থে‌কে দে‌শের বি‌ভিন্ন স্থান থেকে আসা ক‌য়েকশত বাস ফে‌রিপা‌রের অ‌পেক্ষায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়‌কে আট‌কে প‌ড়ে।

বিআইডাব্লিউটিসি গতকাল বৃহষ্পতিবার থেকে ২টি রো-রো ফেরি সামান্য মেরামতের নামে পাটুরিয়া ঘাটে নোঙ্গর করে রেখে এই কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করেছে।

দৌলত‌দিয়া পাটু‌রিয়া নৌরু‌টে বর্তমা‌নে ছোট-বড় ১৯‌টি ফে‌রি চলাচল কর‌ছে। ফেরি সংকটে প্রচন্ড গর‌মে এসব বাসযাত্রীদের ভোগা‌ন্তি তীব্র হয়। যশোরর থেকে ছে‌ড়ে আসা বাসযাত্রী শারমিন আক্তার ব‌লেন, দুপুর ১২টার দি‌কে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তে সি‌রিয়া‌লে আটকে যাই। এখন সা‌ড়ে ৩টা বা‌জে ফে‌রিঘা‌টে আস‌তে পা‌রি‌নি। আরও ঘন্টাখা‌নেক সময় লাগ‌বে। ভে‌ঙ্গে ভে‌ঙ্গে আসা যাত্রী, ব‌্যক্তিগত গাড়ী ও মোটরসাই‌কে‌লের কার‌ণে আমা‌দের ভোগা‌ন্তি ব‌লে জানান তি‌নি।

বাসচালক মো. মিজানুর রহমান ব‌লেন, ব‌্যক্তিগত প্রাই‌ভেটকা‌রগু‌লো‌কে সি‌রিয়া‌লে পার করা উ‌চিত। হাজার হাজার যাত্রী, মোটরসাই‌কেল ও ব‌্যক্তিগত গাড়ীগু‌লো‌তে ফে‌রি লোড হ‌য়ে যা‌চ্ছে। আমা‌দের ঘন্টার পর ঘন্টা অ‌পেক্ষা কর‌তে হ‌চ্ছে।

সন্ধ‌্যার পর কাঁচামা‌লের প‌রিবহন যুক্ত হ‌লে ভোগা‌ন্তি আরও বৃ‌দ্ধি পা‌বে। অথচ দৌলতদিয়া ঘাটে ঈদের আগে ও পরে ৫ দিন করে পণ্যবাহি ট্রাক পারাপর বন্ধ থাকার কথা বিআইডাব্লিউটিসি রাজবাড়ী জেলা প্রশাসন ঘোষণা ঈদের আগে মিটিং করে দিয়েছিল।

স্থানীয় পু‌লিশ ও বিআইড‌ব্লিউ‌টি‌সি সূ‌ত্রে জানা যায়, ব‌্যক্তিগত গাড়ী, সাধারণ যাত্রী ও মোটরসাই‌কেল দ্রুত ফে‌রিঘা‌টে আসার কার‌ণে বাসযাত্রীদের ভোগা‌ন্তি হ‌চ্ছে। দ্রুত সম‌য়ের ম‌ধ্যে সব ধর‌নের যানবাহনগু‌লো‌কে সি‌রিয়া‌লে পার করার ব‌্যবস্থা গ্রহণ করা হ‌বে।

বিআইড‌ব্লিউ‌টি‌সির দৌলত‌দিয়া ফে‌রিঘা‌টের ব‌্যবস্থাপক মো. শিহাব উদ্দীন ব‌লেন, শুক্রবার দুপু‌রের পর থে‌কে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তে যাত্রী ও যানবাহ‌নের চাপ বৃ‌দ্ধি পে‌য়ে‌ছে। সরাস‌রি যাত্রীরা ফে‌রি‌তে যাওয়ার কার‌ণে বাসযাত্রী‌দের ভোগা‌ন্তি হ‌চ্ছে।

দৌলত‌দিয়া পাটু‌রিয়া নৌরু‌টে বর্তমা‌নে ১৯‌টি ফে‌রি চলাচল কর‌ছে।