এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : ঈদ শেষে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবহার করে কর্মস্থলে ফিরছেন দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ। ফলে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘাটে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ।

তবে যাত্রীবাহি বাসকে ১/২ ঘন্টা করে অপেক্ষা করতে হচ্ছে। তীব্র গরমে অতিষ্ট হয়ে অনেক যাত্রী বাস ছেড়ে দিয়ে পায়ে হেঁটে ফেরি ও লঞ্চে উঠে নদী পার হচ্ছে।

ফেরি ঘাটের দালালরা ফেরি পারের জন্য নির্ধরিত ২৫ টাকা ভাড়ার বিপরীতে গত ২ দিন ধরে যাত্রীর চাপ দেখে ওই ভাড়া ৩৫/৪০ টাকা করে আদায় করছে। অবশ্য পুলিশ এ দৃশ্য দেখছে। সাংবাদিকরা অভিযোগ করলে পরে পুলিশ ৪ দালালকে আটক করে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দৌলতদিয়া ফেরিঘাট ব্যবহার করে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার যানবাহন নদী পার হয়ে ঢাকামুখী হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট কর্তৃপক্ষ।

বিআইডাব্লিউটিসির ঘাট কতৃপক্ষ বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় সাড়ে ছয় হাজার যানবাহন ও প্রায় ২ লক্ষাধিক যাত্রী নদী পার হয়েছে। এর মধ্যে বাস ৮৮১টি, ট্রাক ৮১২টি, ছোট গাড়ি ৩ হাজার ৮০৮টি। এছাড়া ৯৫৪টি মোটরসাইকেল পার হয়েছে।

দৌলতদিয়া প্রান্তের দীর্ঘ ভোগান্তি ও অপেক্ষা ছাড়াই যাত্রীরা এবার ফেরি ও লঞ্চে উঠতে পারছেন। তবে অনেক সময় পন্টুনে ফেরির জন্য অপেক্ষায় থাকতেও দেখা গেছে যাত্রীদের।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন বলেন, ঢাকামুখী যাত্রী ও যানবাহনের চাপ বেড়েছে। তবে দৌলতদিয়া প্রান্তে যানবাহনের কোনো সিরিয়াল ও যাত্রী ভোগান্তি নেই। যাত্রী ও যানবাহনের চাপ সামাল দিতে ২১টি ফেরির মধ্যে আজ শুক্রবার ১৯টি চলাচল করছে। দুইটি ফেরি রেডি আছে, চাপ বাড়লে বহরে যোগ করা হবে।

তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রায় সাড়ে ছয় হাজার যানবাহন ও প্রায় ২ লক্ষাধিক যাত্রী নদী পার হয়েছে। এর মধ্যে বাস ৮৮১টি, ট্রাক ৮১২টি, ছোট গাড়ি ৩ হাজার ৮০৮টি। এছাড়া ৯৫৪টি মোটরসাইকেল পার হয়েছে।