গাজীপুর মহানগর প্রতিনিধি : সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ বলেছেন, দুনিয়াতে সবচে কঠিন কাজ শিক্ষকতা করা। একটি সুন্দর দেশ, একটি সুন্দর জাতি গঠনে শিক্ষকরাই সঠিক ভূমিকা রাখতে পারেন। শুধু বিদ্যা জানলেই হবে না, কিভাবে শিক্ষা দিলে শিক্ষার্থীদের অন্তরে দাগ কাটবে সেভাবে শিক্ষা দিতে হবে।

তিনি বৃহস্পতিবার টঙ্গী তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসায় দিনব্যাপী শিক্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক ছিলেন, তা’মীরুল মিল্লাত ট্রাস্টের সেক্রেটারী অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ যাইনুল আবেদীন ও প্রশিক্ষক হিসেবে কর্মশালায় অংশ নেন, ময়মনসিংহ টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আবু হানিফ। টঙ্গী তা’মীরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা মো. মিজানুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআনের দারস পেশ করেন মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম।

বিচারপতি আব্দুর রউফ আরো বলেন, তা‘মীরুল মিল্লাত হচ্ছে বাংলাদেশে মাদ্রাাসা শিক্ষা অঙ্গনের পাইওনিয়ার। যারা এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক হতে পেরেছেন তাদের জন্য এটা সৌভাগ্যের বিষয়। তাই শিক্ষকদের প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে নিজেদের জ্ঞানগত যোগ্যতা ও পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে। চিন্তা-চেতনা ও কর্মতৎপরতার মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান ভান্ডার সমৃদ্ধ করে যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আল্লাহ সুবহানাহু তা’য়ালা স্বয়ং জ্ঞানের উৎস। তিনি জ্ঞান-বিজ্ঞানের ফাউন্ডেশন হিসেবে পবিত্র কুরআন নাজিল করেছেন। কুরআন জীবন্ত, কুরআনের রূহ রয়েছে, কুরআন কথা বলে। কুরআনকে জিজ্ঞেস করলে উত্তর দেয়। কুরআনকে বুঝতে হলে কুরআন দিয়েই বুঝতে হবে।

তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, আপনি যখন শিক্ষকতার জন্য সাক্ষাতকার দিয়েছিলেন, তখন অবশ্যই আপনার প্রতিদ্ব›দ্বী কেউ ছিলেন। কিন্তু মহান আল্লাহ আপনাকে এ পেশার জন্য পছন্দ করেছেন, তাই আপনি শিক্ষকতা পেশায় এসেছেন। আখেরাতে আপনাকে সেভাবেই জিজ্ঞেস করা হবে, আপনার দায়িত্ব আপনি কতটুকু পালন করেছেন। কাজেই ইসলামী জীবন ব্যবস্থা সমাজে ছড়িয়ে দেয়ার জন্য শিক্ষকদের ভেতর চিন্তা-ভাবনা কাজ করতে হবে। শিক্ষকতার দায়িত্ব অত্যন্ত কঠিন ও গুরুত্বপূর্ণ। সেই দায়িত্ব পালনে শিক্ষকদের বিশেষভাবে চিন্তা-ভাবনা করতে হবে।

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ যাইনুল আবেদীন বক্তব্যে বলেন, প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য পূরণে প্রধান কারিগর শিক্ষক। লক্ষ্য কতটুকু বাস্তবায়ন হয়েছে, তা পর্যালোচনা করা প্রয়োজন। কুরআনের আলোকে রাসূল (সাঃ) প্রদর্শিত আদর্শ সমাজ প্রতিষ্ঠার নিমিত্তে একদল দেশশ্রেমিক আল্লাহভীরু যোগ্য নাগরিক গড়ে তোলার জন্য তা‘মীরুল মিল্লাত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। শিক্ষকগণের দ্বারাই সে লক্ষ্য বাস্তবায়ন সম্ভব। রাসুল (সাঃ) শিক্ষক হিসেবে প্রেরিত হয়েছিলেন। উম্মাহর মুক্তির জন্য তিনি যেমন পেরেশান ছিলেন, শিক্ষকগণকে তেমনি পেরেশান হতে হবে।

অনুষ্ঠানে ময়মনসিংহ টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহকারী অধ্যাপক মো. আবু হানিফ শ্রেণিক্ষক ব্যবস্থাপনা ও শিক্ষাদান পদ্ধতির উপর সময়োপযোগী আলোচনা উপস্থাপন করেন।