গতকাল শনিবার ৮ অক্টোবর বাদ আছর বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশের উদ্যোগে পবিত্র মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপন উপলক্ষে নগরীর ধনিয়ালাপাড়া বায়তুশ কেন্দ্রীয় মসজিদ প্রাঙ্গণে আয়োজিত চারদিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার তৃতীয় দিবস গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে রাহবারে বায়তুশ শরফ আল্লামা শায়খ মুহাম্মদ আবদুল হাই নদভী বলেন, মহানবী (সা.)-এর পথ অনুসরণ করলে, রাষ্ট্রীয় ও ব্যক্তিজীবনে তার আদর্শের প্রয়োগ ঘটানো গেলে, পৃথিবীর সর্বক্ষেত্রে শান্তির সুবাতাস বইবে আর পরিলক্ষিত হবে চির শান্তিময় এক সুখী-সমৃদ্ধশালী নতুন বিশ্ব।

তিনি বলেন, মহানবী (সা.) এর শুভাগমনের মাসকে সামনে রেখে আড়ম্বরতা ও ঝাঁকঝমক পূর্ণ অনুষ্ঠান সর্বস্ব কর্মসূচি পরিহার করে তাঁর প্রকৃত শিক্ষা সর্বস্তরের মুসলিম জনগণ, বিশেষ করে তরুণ সমাজের অন্তরে প্রকৃত নবীপ্রেম ও আদর্শ প্রতিফলনের উদ্দেশ্যে বায়তুশ শরফ আঞ্জুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ কর্তৃক ১৯৮৪ সাল থেকে মহানবী (সা.) এর জীবনচরিতের উপর রচনা প্রতিযোগিতা, ছোটদের অংশগ্রহণে বিশেষ অনুষ্ঠান পাখপাখালির আসর, শানে মোস্তফা (সা.) মাহফিল, গুণীজন সংবর্ধনা ও আজিমুশশান ওয়াজ মাহফিলসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে।

তিনি বলেন, দেশে জ্ঞানীর সংখ্যা বাড়লেও গুণীর সংখ্যা দিনদিন কমে যাচ্ছে, যা দেশ ও জাতির জন্য অশনি সংকেত। সমাজের গুণীজনদের সম্মাননা জ্ঞাপন অত্যন্ত মহতী এক উদ্যোগ। এর মাধ্যমে সমাজে আরো গুণীজনের জন্মের পথ প্রশস্ত করা হয়, সমাজের উন্নয়ন ও অগ্রগতি আরো ত্বরান্বিত হয়। কারন, একজন গুণী ব্যক্তির কারণে একটি জনপদ সুপরিচিত হতে পারে। এজন্য গুণীজনের প্রতি সম্মান দেখানো সকলের উচিত।

উল্লেখ্য, ইসলামী মূল্যবোধ সমুন্নত রেখে একটি সুন্দর, সৃজনশীল ও আলোকিত সমাজ গড়তে জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য চারজন বিশিষ্ট গুণী ব্যক্তিকে সংবর্ধনা ও বায়তুশ শরফ স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়, তারা হলেন- প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. আ.ক.ম আবদুল কাদের, বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রতীক, প্রখ্যাত আলেম মাওলানা মুহাম্মদ আজিজুল হক, শিল্প উদ্যোক্তা আলহাজ্ব মুহাম্মদ শামসুল আলম।

গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ এর সেক্রেটারি জেনারেল আলহাজ্ব মুহাম্মদ ইদ্রিস মিয়া, মজলিসুল উলামার মহাসচিব ও অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক মাওলানা মামুনুর রশীদ নুরী, যুগ্ম আহবায়ক হাফেজ মোহাম্মদ আমান উল্লাহ, বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) মাওলানা মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কাজী মাওলানা শিহাব উদ্দিন। – বিজ্ঞপ্তি