দুবলার আলোরকোল খালে অবস্থান নিয়ে আছে জেলেরা।

শেখ মোহাম্মদ আলী, সুন্দরবন অঞ্চল প্রতিনিধি : শীতে কাঁপছে দুবলারচরের জেলেরা। তীব্র শৈত প্রবাহে সাগরে জাল ফেলতে না পেরে জেলেরা তীরে ফিরে আসছেন। শীতে জুবুথুবু অবস্থা চরের কয়েক সহস্রাধিক জেলের। অপর দিকে শীতে দক্ষিণ অঞ্চলের জীবনযাত্রা থমকে গেছে।

দুবলার আলোরকোল চর থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে রামপাল জেলে সমিতির সভাপতি মোতাসিম ফরাজি মোবাইল ফোনে জানান, গত দুই দিন ধরে তীব্র শৈত প্রবাহের ফলে দুবলারচরের কয়েক হাজার জেলে শীতে কাঁপছে। চরের অস্থায়ী মাচাঘরে জবুথবু হয়ে জেলেরা অবস্থান করছে। প্রচন্ড ঠান্ডা বাতাসের কারণে জেলেরা সাগরে মাছ ধরতে পারছেন না। শীত নিবারণের প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্র জেলেদের না থাকায় অনেক জেলে ঠান্ডাজনীত রোগে আক্রান্ত হচ্ছে এবং গত দুই দিন ধরে সুর্য তেমন দেখা যাচ্ছে না বলে মোতাসিম ফরাজি জানিয়েছেন।

অপরদিকে, তীব্র শৈত প্রবাহের কারণে পিরোজপুর ও বাগেরহাট অঞ্চলের মানুষের জীবনযাত্রা থমকে গেছে। নিত্য খেটে খাওয়া দিনমজুর মানুষ কাজে যেতে পারছে না। শরণখোলার কদমতলা গ্রামের দিন মজুর দুলাল খান,সোবহান হাওলাদার বলেন,তীব্র শীতে কাজে যেতে না পারায় আমাদের আয়রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে।

দুবলার আলোরকোল ফরেস্ট টহল ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাদিক মাহমুদ মোবাইল ফোনে ইত্তেফাককে বলেন, বর্তমানে দুবলারচর অঞ্চলে তীব্র শৈত প্রবাহ চলছে। ঠান্ডা বাতাসে সাগরে টিকতে পারছে না জেলেরা। সাগরে জাল ফেলতে না পেরে জেলেরা চরে ফিরে আসছে। বর্তমানে ১০ সহস্রাধিক মাছ শুঁটকি করণের জেলে দুবলারচর অঞ্চলে অবস্থান করছে বলে ঐ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন।