তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার তালম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করায় উপজেলা জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তালম ইউনিয়নের তারটিয়া গ্রামে।

তালম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্বাস-উজ-জামানের অভিযোগ, সাম্প্রতিক সময়ে তালম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক তার সাথে অশালীন আচরণ করে ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এতে তার বিরুদ্ধে প্রাণনাশের হুমকি দেয়ায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন।

তালম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্বাছ-উজ-জামানের অভিযোগ, আমি চেয়ারম্যান থাকাকালীন গ্রাম আদালতের সহকারী আব্দুল হান্নান আমার স্বাক্ষর নকল করে বিভিন্ন জালিয়াতির কাজ করে আসছিল। পরে আব্দুল হান্নানের জালিয়াতির বিষটি নজরে এলে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা করা হয়।

এ নিয়ে সিআইডি পুলিশের তদন্তে তার বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে সিআইডি। আর সে কারণেই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক জালিয়াতীর দায়ে অভিযুক্ত আব্দুল হান্নানকে ও তার নিকটতম আত্মীয়-স্বজন তারাটিয়া গ্রামের আব্দুস সাত্তার, আব্দুল আজিজ, নজিবর রহমান, ইসাহাক আলী ও আলম শেখকে দিয়ে মিথ্যা একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তালম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্বাছ-উজ-জামান আরো বলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড বিএনপি সিনিয়র সহসভাপতি শামছুল আলম ও সদস্য সদু চন্দ্রকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগকে ও আওয়ামী লীগের উন্নয়ন কর্মকাÐকে বাধা গ্রস্থ করতেই এমন মিথ্যা অভিযোগ আওয়ামী লীগ সরকারে ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করছেন।

তালম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল খালেক বলেন, তার সাথে আমার কোন ঘটনাই ঘটেনি। কিন্তু তিনি আমার বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেছেন। জিডির তদন্তে বেরিয়ে আসবে ঘটনা কি ঘটেছিল।

তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ খন্দকার বলেন, তালম ইউনিয়নের বর্তমান ও সাবেক চেয়ারম্যানের সাথে দ্বন্দ চলছে বলে শুনেছি। এর বেশি আমার জানা নেই।