বগুড়া অফিস : প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ও দ্যা ডেইলী অবজারভারের সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেছেন, অপসাংবাদিকতাকে রোধ করতে হলে প্রকৃত সাংবাদিকদের সোচ্চার হতে হবে।

সারাদেশে সাংবাদিকরা নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। রোজিনা ইসলাম এর মত অনেক সাংবাদিক নির্যাতন ও নিপীড়নের শিকার হয়েছেন। দীপঙ্কর চক্রবর্তীর মতো অনেক সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত কোনো হত্যারই আমরা বিচার পাইনি। তিনি বলেন, বর্তমানে সারাদেশে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিকদের নামে মামলা ও সাংবাদিকদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। আমরা চাই তদন্ত করে যদি দোষী হয় আদালতের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

কিন্তু তদন্ত হওয়ার পূর্বেই সাংবাদিককে গ্রেফতার করে হয়রানি করা হচ্ছে। জামিন দেওয়া হচ্ছে না। দীপঙ্কর চক্রবর্তী, সাগর-রুনিসহ সকল সাংবাদিক হত্যার বিচার চাই।

তিনি শনিবার বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়নের আয়োজনে সার্কিট হাউস মিলনায়তনে সিনিয়র সাংবাদিক দীপঙ্কর চক্রবর্তী হত্যাকান্ডের ১৭ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

বগুড়া সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আমজাদ হোসেন মিন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জেএম রউফ এর পরিচালনায় আয়োজিত স্মরণ সভা ও স্মৃতি পদক প্রদান অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুদুল আলম নয়ন ও সাধারণ সম্পাদক আরিফ রেহমান,শিবগন্জ পৌরসভার মেয়র তৌহিদুর রহমান মানিক।

অনুষ্ঠানে দীপঙ্কর চক্রবর্তীর ছেলে অনিরুদ্ধ চক্রবর্তী গোপা তার বাবার হত্যাকারীদের বিচারের দাবি জানান।

স্মৃতি পদক পাওয়া সাংবাদিকরা হলেন বগুড়ার প্রবীণ সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম চৌধুরী, প্রবীণ সাংবাদিক রবিউল করিম হেলাল ও দৈনিক করতোয়ার বার্তা সম্পাদক প্রদীপ শঙ্কর ভট্টাচার্য্য।