শামীম সুমন, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনটি শূণ্যে ঘোষণা করে উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১৬ জানুয়ারি ২০২২ এ আসনতে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশনের সংবাদ সম্মেলনে এ তফসিল ঘোষণা করা হয়।

প্রসঙ্গত টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনের টানা চারবারের জাতীয় সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন গত ১৬ নভেম্বর ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল(সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

তাঁর মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। সেই অনুযায়ী আগামী ২০২২ সালের ১৬ জানুয়ারী আসনটিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ১৫ ডিসেম্বর ও মনোনয়নপত্র বাছাই ২০ ডিসেম্বর আর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৭ ডিসেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে। ২৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে এ উপ-নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হবে।

এদিকে উপ-নির্বাচনে আসনটিতে দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগের নয়জন এমপি পদপ্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। প্রয়াত এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. একাব্বর হোসেনের সহধর্মিনী ও পুত্রসহ ৯ জন বুধবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তাদের মনোনয়ন জমা দেন।

এদিন প্রয়াত এমপির সহধর্মিনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঝর্ণা হোসেনের পক্ষে তার ভাই জাকির হোসেন মনোনয়নপত্র জমা দেন। অন্যরা নিজে উপস্থিত হয়ে তাদের মনোনয়নপত্র জমা দেন।

মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা নৌকার টিকিট পেতে দলীয় হাইকমান্ডের সঙ্গে লবিং থেকে শুরু করে তৃর্ণমূল নেতা-কর্মীদের কাছে টানতে কাজ করে যাচ্ছেন। যদিও এ উপ-নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে না প্রধান প্রতিদ্বন্দী দল বিএনপি।

উপ-নির্বাচনে আসনটিতে দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগের নয়জন এমপি পদপ্রার্থী তাঁরা হলেন প্রয়াত সাংসদের সহধর্মিনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ঝর্ণা হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মেজর (অব.) খন্দকার আব্দুল হাফিজ, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খান আহমেদ শুভ,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকদ্বয় সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল, তৌফিকুর রহমান তালুকদার রাজিব, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সম্পাদক প্রয়াত এমপি পুত্র ব্যারিস্টার তাহরীম হোসেন সীমান্ত, মধুমতি ব্যাংকের পরিচালক ও ইবিএস গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক রাফিউর রহমান খান ইউসুফজাই, বাংলাদেশ জাতীয় পল্লী উন্নয়ন সমবায় ফেডারেশনের চেয়ারম্যান ও মির্জাপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার বিপ্লব মাহমুদ উজ্জ্বল।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ বলেন, দীর্ঘদিন যাবত দলকে সুসংগঠিত করেছি, প্রধানমন্ত্রী আমাকে মনোনয়ন দিলে সাধারণ জনগণ আমাকে বিজয়ী করবেন বলে আমি আশাবাদী। দল যাকে মনোনয়ন দেবে আমরা সবাই তার পক্ষে কাজ করব এবং প্রধানমন্ত্রীকে নৌকা উপহার দেব।

প্রয়াত এমপি পুত্র বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সহ-সম্পাদক ব্যারিস্টার তাহরীম হোসেন সীমান্ত, সাংবাদিকদের বলেন, আমার পিতা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা টানা চার বারের জাতীয় সংসদ সদস্য ছিলেন তিনি। তার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজ শেষ করে বাবার আত্মার শান্তি দিতে চাই। আর উপজেলা বাসীর এতো ভালোবাসায় আমি এমপি পদপ্রার্থীর মনোনয়নপত্র তোলেছি। দল আমাকে মনোনয়ন দিলে সাধারণ জনগণ আমাকে বিজয়ী করবেন বলে আমি আশাবাদী।