কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : দীর্ঘ কয়েক বছর পরে ঝালকাঠি জেলা শহরের সঙ্গে প্রত্যন্ত উপজেলা কাঁঠালিয়ায় বাস চলাচল শুরু হয়েছে। এতে কাঁঠালিয়াবাসীর মধ্যে আনন্দের বন্যা ভাড়া নিয়ে বিষাদে রূপ নিয়েছে। চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে যাত্রীদের মধ্যে।

সোমবার (২৫ জুলাই) সকাল থেকে এ বাস চলাচল শুরু হয়। মালিক সমিতি ঝালকাঠি থেকে কাঁঠালিয়া বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রতিজনে ভাড়া ধার্য করা হয়েছে ৭০ টাকা। যা পথের তুলনায় বেশি হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে।

ঝালকাঠি জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি ঝালকাঠি বাস টার্মিনাল থেকে কাঁঠালিয়া বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত গতকাল থেকে যাত্রীবাহী বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এমাদুল হক মনির।

কাঠালিয়া সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মাহমুদুল হক নাহিদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন থানা অফিসার ইনচার্জ মো. মুরাদ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান উজির সিকদার।উদ্বোধন শেষে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।ঝালকাঠি জেলা বাস মালিক সমিতি এর আয়োজন করে।

এতে ঝালকাঠি থেকে কাঁঠালিয়া এবং কাঁঠালিয়া থেকে ঝালকাঠি পর্যন্ত ভাড়া নির্ধারণ করেছে ৭০ টাকা। ঝালকাঠি (প্রস্থান) করে রাজাপুর ৩০, তুলাতলা ৩৫, আঙ্গারিয়া ৪০, পুটিয়াখালী ৪০, সোনার মোড় ৪৫, গাজীর হাট ৪৫, ছিটকি মাদরাসা ৫০, ছিটকি বাজার ৫০, সাতানি ৫৫, মুন্সিরাবাদ ৫৫, সেন্টারের হাট ৬০, কচুয়া বাজার ৬০, পোলের হাট ৬৫ ও কাঁঠালিয়া বাসস্ট্যান্ড ৭০ টাকা।

কাঁঠালিয়া (প্রস্থান) থেকে পোলের হাট ৫, কচুয়া বাজার ১০, সেন্টারের হাট ১৫, মুন্সিরাবাদ ১৫, সাতানী বাজার ২০, ছিটকি বাজার ২৫, ছিটকি মাদরাসা ২৫, গাজীর হাট ২৫, সোনার মোড় ৩০, পুটিয়াখালী ৩৫, আঙ্গারিয়া ৪০, তুলাতলা ৪০, রাজাপুর ৪০, ঝালকাঠি ৭০ টাকা।ঝালকাঠি জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির একপত্রে এ ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে।

ভাড়ার নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, এত দ্বারা ঝালকাঠি জেলা বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির সম্মানিত মালিক/চালক/কাউন্টার করণিক ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো যাইতেছে যে, ঝালকাঠি-কাঁঠালিয়া ও কাঁঠালিয়া-ঝালকাঠি সড়কে ভাড়ার তালিকা অনুযায়ী সম্মানিত যাত্রী সাধারণের কাছ থেকে জনপ্রতি এ ভাড়া কার্যকর হবে।

ঝালকাঠি থেকে ৪৩ কিলোমিটার দূরত্বে কোনো নিয়মে ৭০ টাকা ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে তা আদৌ ওই নোটিশে উল্লেখ করা হয়নি। কিলোমিটার ও দূরত্ব ভেদে ভাড়ার বৈষম্য রয়েছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের। এ ছাড়া ওই নোটিশটি বাস মালিক সমিতির নিজস্ব প্যাডে ঘোষণা দিলেও কোনো পদ-পদবিধারীর স্বাক্ষর নেই। নিচে লেখা শুধু কর্তৃপক্ষ। রাজাপুর ও কাঁঠালিয়ার একাধিক যাত্রী জানান, বাস ভাড়া কিলোমিটারের তুলনায় বেশি হয়েছে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করা উচিত।

কাঁঠালিয়ার যাত্রীরা জানান, ভাড়ার অসন্তোষ নিয়ে যাত্রীরা দুই উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) দ্বারস্থ হতে হবে। ভাড়ার বিষয়ে তাদের অবহিত করতে হবে। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারণ করার দাবি তুলতে হবে।