কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ‘এসো পাখির বন্ধু হই’ শ্লোগানে ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার নয়নাভিরাম শৌলজালিয়া চরকে পাখির অভয়রাণ্য ঘোষণা করা হয়েছে।

সম্প্রতি উপজেলা প্রশাসন ও শৌলজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সাইনবোর্ড টানিয়ে এ চরকে পাখির অভয়রাণ্য ঘোষণা করে। ইতোমধ্যে এখানকার বিভিন্ন গাছে পাখির বাসার জন্য হাড়ি ঝোলানো হয়েছে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় এখানে পাখির বংশ বিস্তারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া ও এ চরকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার কথা জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার দক্ষিণ শৌলজালিয়ার বিশখালী নদীতে প্রায় ৩০ বছর আগে জেগে ওঠে ১০০ একর আয়তনের এক নৈসর্গিক চর। এ চরে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ছোট বড় গাছ ও বিভিন্ন প্রজাতির পাখি। পাখির কলতানে সবসময় মুখরিত থাকে শৌলজালিয়ার এই চর।

এখানে গাংচিল, দোয়েল, কোকিল, টুনটুনি, বক, টিয়া, ঘুঘু, পেঁচা, বুলবুলি, বউ কথা কও, দাঁড় কাক, শালিক, বাবুই, ডাহুক, মাছরাঙা ও পানকৌড়িসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি রয়েছে।

সম্প্রতি এই চরকে পাখির অভয়রাণ্য ঘোষণা করার পরে এখানে মাটি কাটা, বালু উত্তোলন, গাছকাটা এবং গবাদিপশু চড়ানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে এ চরকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলারও পরিকল্পনা রয়েছে উপজেলা প্রশাসনের।

এখানে যাতে পর্যটকরা এসে বিশ্রাম নিতে পারে সে জন্য এখানে ছোট ছোট ঘর করে দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে প্রশাসনের।

আশা করি আগামী শীতেই এর কাজ শুরু করা যাবে।