কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠিতে দুইটি বাসে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে দুইশত কেজি জাটকা ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। এ সময় দুই বাসের সুপারভাইজারকে পাঁচ হাজার করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বরিশাল-খুলনা মহাসড়কের বাসন্ডা ব্রীজের ঢালে যুব উন্নয়ন কার্যালয়ের সামনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রেড এনডিসি অংছিং মারমা। এ সময় কুয়াকাটা থেকে বেনাপোল গামি কুয়াকাটা এক্সপ্রেস এর সুপার ভাইজার এসএম রাহুল ও সেভেনস্টার পরিবহনের সুপার ভাইজার রুবেল হাওলাদারকে পাঁচ হাজার করে মোট ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান পরিচালনাকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিনহাজুল ইসলাম, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রিপন কান্তি ঘোষ উপস্থিত ছিলেন।

এনডিসি অংছিং মারমা বলেন, ইলিশ রক্ষায় কম্বিং অভিযানের অংশ হিসেবে এ অভিযান পরিচালনায় করা হয়। এসময় জাটকা ইলিশ পরিবহণের দায়ে দুইটি বাসের সুপারভাইজারকে পৃথক দুটি মামলায় জনপ্রতি ৫,০০০ টাকা করে মোট ১০,০০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে। প্রায় ২০০ কেজি জাটকা ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। জব্দকৃত মাছ ৬টি এতিমখানা, ১টি সরকারি শিশু পরিবার এবং উপস্থিত ৬ জন দরিদ্র রিক্সাওয়ালার মাঝে বন্টন করা হয়েছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রিপন কান্তি ঘোষ জানান, জাটকা নিধনে নিষেধাজ্ঞা সফল করতে দ্বিতীয় ধাপের বিশেষ কম্বিং অপারেশন শুরু করেছে জেলা মৎস্য অধিদপ্তর। গত বছরের ১ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযান চলবে চলতি বছরের ৩০ জুন ২৩ পর্যন্ত। এ সময় জাটকা আহরণ, পরিবহন, মজুত, ক্রয়-বিক্রয় ও বাজারজাতকরণ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।