কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির সদর উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর দশটি বিশেষ উদ্ভাবনী উদ্যোগ নিয়ে উপজেলা পর্যায়ে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় সদর উপজেলা পরিষদ মিলনাযতনে প্রধান অতিথি হিসেবে কর্মশালার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় সভাপতিত্ব করবেন সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেকুন্নাহার।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় জেলা প্রশাসক বলেন, ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দশটি বিশেষ উদ্যোগ। এর সঙ্গেই রয়েছে ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের চ্যালেঞ্জ। রাষ্ট্রীয় উন্নয়নের অংশীদার বিভিন্ন উপজেলার সমন্বিত উদ্যোগ এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সহায়ক হবে।

তিনি বলেন, সকলের মতামতের ভিত্তিতে মাঠ পর্যায়ের সমস্যা চিহ্নিত করা গেলে রাষ্ট্রীয়ভাবে পরিকল্পনা গ্রহণে এটি কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ঝালকাঠির সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খান আরিফুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঈন তালুকদার,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালী।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের গভর্নেস ইনোভেশন ইউনিটের সহযোগিতায় সদর উপজেলা পরিষদ মিলনাযতনে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি বিশেষ উদ্যোগ বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী।

পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, আশ্রয়ণ প্রকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচি, নারীর ক্ষমতায়ন, সবার জন্য বিদ্যুৎ, কমিউনিটি ক্লিনিক ও শিশুর বিকাশ, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, বিনিয়োগ বিকাশ ও পরিবেশ সুরক্ষা শীর্ষক প্রধানমন্ত্রীর ১০টি বিশেষ উদ্যোগ নিয়ে কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা ৪টি গ্রুপে ভাগ হয়ে সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সুপারিশ তুলে ধরেন। কর্মশালায় ঝালকাঠির সদর উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, সাংবাদিক ও বিশিষ্টজনরা অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালার দ্বিতীয় অধিবেশনে দলগত কার্যক্রম শেষে সুপারিশমালা উপস্থাপন করা হয়।