কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির ভীমরুলীতে ঐতিহ্যবাহী ভাসমান পেয়ারাবাজার এলাকায় খালসমূহ পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বিষযক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার ভীমরুলী হরিসভা চত্বরে এ মতবিনিময সভা অনুষ্ঠিত হয়। কির্তিপাশার ইউপি চেযারম্যান ইঞ্জিনিযার আব্দুর রহিমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবেকুন নাহার।এ সময অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) জান্নাত আরা, জেলা প্রশাসক কার্যালযের রাজস্ব ডেপুটি কালেক্টর (আরডিসি) আহম্মেদ হাছান, নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) তাছবির হোসেন।

স্থানীয ট্রলার চালক, বাগান মালিক, পেযারা চাষি, দোকান মালিক এবং জনপ্রতিনিধিদের নিযে এই মতবিনিময সভা অনুষ্ঠিত হয। সভার আযোজক ছিলেন ঝালকঠি সদর উপজেলার ৫ নং কির্তিপাশা ইউনিযন পরিষদ।

বক্তারা জানান, পদ্মাসেতু চালু হবার সুবাদে ভাসমান পেয়ারা বাজার ও পেয়ারারাজ্যে দেশী-বিদেশী পর্যটকরা আসছেন। পরিদর্শন করছেন দেশের শীর্ষ রাজনীতিবিদ ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারাও। মুক্তিযুক্তের স্মৃতি বিজড়িত পেয়ারা বাগানের পরিবেশ রক্ষা, খালের পানি দুষনমুক্ত রাখা, এলাকায শব্দদুষন নিযন্ত্রন করার বিষযে সভায আলোচনা হয। ট্রলার চালকদেরকে পর্যটকদের ট্রলারে ডাস্টবিন রাখার পরামর্শ দেযা হয।

ভাসমান পেয়ারা বাজারে সচেতনতামূলক পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান

ঝালকাঠি সদর উপজেলার কীর্ত্তিপাশা ইউনিয়নের অন্তর্গত ভীমরুলী ভাসমান পেয়ারা বাজারে সচেতনতামূলক পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন’র আয়োজনে সামাজিক সেচ্ছাসেবী সংগঠন ইয়ুথ অ্যাকশন সোসাইটি-ইয়াস এর সহযোগিতায় বিশেষ সচেতনতামূলক পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মুক্তিযুক্তের স্মৃতি বিজড়িত পেয়ারাবাগান। পদ্মাসেতু চালু হবার সুবাদে ভাসমান পেয়ারা বাজার ও পেয়ারারাজ্যে দেশী-বিদেশী পর্যটকরা আসছেন। পরিদর্শন করছেন দেশের শীর্ষ রাজনীতিবিদ ও প্রশাসনিক কর্মকর্তারাও।

কিন্তু এ পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকদের জন্য নেই পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা। মানসম্মত খাবার হোটেল, গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থা, স্বাস্থ্যসম্মত শৌচাগার ও আবাসনের ব্যবস্থা নেই। পর্যটকরা এখানে ঘুরতে এসে এ অঞ্চলের প্রতি বিরূপ ধারণা নিয়ে যান। ভাসমান হাটের ঐতিহ্য ধরে রাখতে পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধার দাবীও সহ পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের সময় সদস্যরা পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষন করে।

সচেতনতার লক্ষ্যে মাইকিং করে পেয়ারা বাগান ও ভাসমান পেয়ারা বাজার এলাকায় যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলা থেকে বিরত থাকতে বলে। তারা পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর প্লাস্টিকের বোতল, ওয়ান টাইম গ্লাস, প্লেট, পলি জাতীয় পদার্থ পানিতে ফেলা থেকে বিরত থাকার আহ্ববান জানান।

জীববৈচিত্র রক্ষায় সকলকে বাজারের আশে পাশে উচ্চ শব্দে সাউন্ড বক্স বাজানো থেকেও বিরত থাকতে আহবান জানান।

পরিচ্ছন্নতা অভিযানের উপস্থিত ছিলেন ইয়ুথ অ্যাকশন সোসাইটি-ইয়াস’র সাধারণ সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম রাব্বি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির হোসেন রানা।