কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠিতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার দায়ে দুই জেলেকে এক বছর করে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। সুগন্ধা ও বিষখালী নদীতে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং মৎস্য বিভাগ যৌথভাবে ৯টি অভিযান ও ৮টি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৪৬ হাজার ৫শ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল ও মাছ ধরার একটি নৌকসহ ৩৪ কেজি ইলিশ জব্দ করেছে। আটককৃত জাল নদী তীরে জনসন্মুখে পুড়িয়ে ফেলা হয় এবং জব্দকৃত ইলিশ স্থানীয় বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে কাঠালিয়া উপজেলার বিষখালী নদীতে মাছ শিকারের সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে উপজেলার তালগাছিয়া গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে উজরান (১৯) এবং শৌলজালিয়ার আব্দুল জব্বারের ছেলে সোহেল রানা (১৮) কে আটক করে এক বছর করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে।

এছাড়া সুগন্ধা ও বিষখালী নদীতে অভিযান চালিয়ে ১৫ হাজার মিটার কারেন্ট জাল আটক করা হয়েছে। এসময় জাল ফেলে জেলেরা পালিয়ে যায়। পরে জব্দকৃত জালগুলো জনসম্মুখে সুগন্ধা নদীর পাড়ে পুড়িয়ে ফেলা হয়। শুক্রবার সকাল থেকে নদীতে মৎস্য বিভাগ ও প্রশাসনের অভিযান চলছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রিপন কান্তি ঘোষ জানান, সুগন্ধা ও বিষখালী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত জেলা প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগ পুলিশের সহযোগিতায় ৫ জন জেলেকে এক বছর করে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। ৮০ হাজার মিটার জাল জদ্ব করা হয়েছে। অভিযান সফল করতে জেলা ও উপজেলা ১০টি ট্রলার, ২টি স্পিডবোট নিয়ে নদীতে টহল দেয়া হচ্ছে।

গত সাত দিনে জেলায় ৩১টি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৬৮টি অভিযান পরিচালনা করে এক লক্ষ ৮০ হাজার মিটার জাল এবং ৬৮ কেজি ইলিশ ও ৫টি নৌকা জব্দ এবং ৭ জেলেকে আটক করে প্রত্যেককে একবছর করে সাজা প্রদান করা হয়।