কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : জাটকা নিধনে নিষেধাজ্ঞা সফল করতে দ্বিতীয় ধাপের বিশেষ কম্বিং অপারেশন শুরু করেছে ঝালকাঠি মৎস্য অধিদপ্তর।

শুক্রবার ২০ জানুয়ারি বিকেলে উপজেলা প্রশাসন ও ঝালকাঠি সদর মৎস্য অধিদপ্তর উপজেলার সুগন্ধা ও বিষখালী নদীতে অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ৫০০০ মিটার কারেণ্ট জাল ও চরঘেরা জাল আটক করা হয়। আটক জালগুলো নদীর কূলে জনসম্মূখে আগুনে পুড়ে বিনষ্ট করা হয়।

ঝালকাঠি সদর সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা দেবাশীষ বাছাড়; জানান, মৎস্য সম্পদ ধংসকারী বেহুন্দী ও অন্যান্য ক্ষতিকর অবৈধ জাল অপসারণে দ্বিতীয় ধাপের বিষেশ কম্বিং অপারেশন ২০২৩ পরিচালনা করে এ অবৈধ জালগুলি আটক করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝালকাঠি সদর থানা পুলিশ ফোর্স এর সদস্যবৃন্দ এবং উপজেলা মৎস্য মৎস্যঅধিদপ্তর এর সহকর্মীবৃন্দ।

অপরদিকে শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজাপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার অনুজা মন্ডলের (ভূমি) নেতৃত্বে রাজাপুর বাইপাস মাছ বাজারে মোবাইল কোর্ট পরিচানা করে জাটকা বিক্রি অবস্থায় ১ জন মাছ বিক্রিতাকে আটক করা হয় এবং ৫০০০/- টাকা জরিমানা করা হয়। জব্দকৃত ৬ কেজি জাটকা মাছ স্থানীয় ১ টি এতিমখানায় বিতরন করা হয়।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা রিপন কান্তি ঘোষ জানান, জাটকা নিধনে নিষেধাজ্ঞা সফল করতে দ্বিতীয় ধাপের বিশেষ কম্বিং অপারেশন শুরু করেছে জেলা মৎস্য অধিদপ্তর। গত বছরের ১ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ অভিযান চলবে চলতি বছরের ৩০ জুন ২৩ পর্যন্ত। এ সময় জাটকা আহরণ, পরিবহন, মজুত, ক্রয-বিক্রয ও বাজারজাতকরণ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।