কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : “জনশুমারিতে তথ্য দিন পরিকল্পিত উন্নয়নে অংশনিন” এ শ্লোগানে ঝালকাঠিতে জনশুমারি ও গৃহগনণা ২০২২ শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে সকাল ৯ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর থেকে জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলীর নেতৃত্বে র‌্যালি বের হয়।

র‌্যালিটি বিভিন্ন শহর প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে কার্যালয় চত্বরে পায়রা উড়িয়ে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন কনে জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী। এতে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো ঝালকাঠির জেলা উপ-পরিচালক আতিকুর রহমানসহ উপজেলা অফিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আজ থেকে সপ্তাহব্যাপী বসবাসরত ব্যাক্তিকে গণনাসহ তাদের সম্পর্কে মৌলিক জনমিতিক, আর্থ-সামাজিক ও বাস গৃহ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হবে। ঝালকাঠি জেলায় ২শত ৫৭জন সুপারভাইজারসহ মোট ১হাজার ১শত ৮৮জন গনণা কাজ করবেন।

রাত ১২টায় দিবসের প্রথম প্রহরেই বাংলাদেশে বসবাসরত ব্যাক্তিকে গণনাসহ তাদের সম্পর্কে মৌলিক জনমিতিক, আর্থ-সামাজিক ও বাস গৃহ সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করা হবে।

দেশের প্রতিটি ঘরের সদস্যগণকে গণনা করে দেশের মোট জনসংখ্যার হিসাব নিরুপণ, দেশের সকল বাস গৃহের সংখ্যা নিরুপণ, দেশের সার্বিক উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহনের লক্ষে তথ্য সংগ্রহ, স্থানীয় জাতীয় নির্বাচানে নির্বাচনি এলাকার সীমানা নির্ধারনের জন্য এবং জাতীয় সম্পদের সুষম বণ্টন নিশ্চিত করার লক্ষে তথ্য সরবরাহ এই জনশুমারী ও গৃহ গণনার প্রধান উদ্দেশ্য। ট্যাবের মাধ্যমে কেপি পদ্ধতিতে তথ্য সংগ্রহ করা হবে।