হারিস মোহাম্মদ, জুড়ী : জুড়ী ও বড়লেখা উপজেলার বিভিন্ন বনবিট এলাকায় বন্যহাতির উপদ্রব শুরু হয়েছে। গত কয়েক দিন ধরে তিনটি বন্যহাতির দল জুড়ী উপজেলা দূর্গাপুর গ্রামের বিভিন্ন মানুষের গাছপালা ও জমিনের ফসলের ক্ষতি করায় লোকজনের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে।

বাড়ি-ঘরে হাতির আক্রমণের ভয়ে লোকজন রাত জেগে মশাল জ্বালিয়ে পাহারা দিচ্ছে। শনিবার (২১ জানুয়ারি) সকালে বড়লেখার সমনবাগ বনবিটের আওতাধীন দূর্গাপুর গ্রামে মৌলভীবাজার বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও সংরক্ষণ বিভাগ এবং সিলেট বন বিভাগ যৌথভাবে হাতি সংরক্ষণ বিষয়ক গণ-সচেতনতামূলক সভা করেছে।

এ সময় সভায় উপস্থিত লোকজনের মধ্যে মানুষ ও হাতির দ্বন্দ্ব নিরসন, হাতি ও মানুষ উভয়কে নিরাপদ রাখা এবং হাতি সংরক্ষণের কলাকৌশল সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করা হয়।

সভায় বক্তব্য দেন মৌলভীবাজারের বন্যপ্রাণি ও জীববৈচিত্র সংরক্ষণ কর্মকর্তা মির্জা মেহেদী সরোয়ার, রেঞ্জ কর্মকর্তা গোলাম সরোয়ার, বনবিভাগের বড়লেখা রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস, সমনবাগ বিট কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম, রমিজ উদ্দিন প্রমুখ।

মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে- জুড়ী রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন বলেন, বন্যহাতির আক্রমণ থেকে বাঁচতে বন বিভাগের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক সভা-সেমিনার ও লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে।