হারিস মোহাম্মদ, জুড়ী (মৌলভীবাজার) : মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার হযরত শাহখাকী (রহ) আলিম মাদ্রাসার নির্মাণাধীন ভবন থেকে রোববার (১৩ নভেম্বর) দুপুরে সাহিদ আলী (২২) নামে এক শ্রমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা গ্রামের মৃত হাসান আলীর ছেলে সাহিদ আলী হযরত শাহখাকী (রহ) আলিম মাদ্রাসার নির্মাণাধীন ভবণে শ্রমিকের কাজ করত।প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার রাতে ওই মাদ্রাসার নৈশ প্রহরী সুরজান আলীর সাথে খোশগল্প করে নির্মাণাধীন ভবণের নিচতলার কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। সকালে ওই ভবণের ২য় তলায় তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা প্রিন্সিপালকে অবগত করে। পরে জুড়ি থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে।

নৈশ প্রহরী সুরজান আলী বলেন, শনিবার এশার আযানের সময় সাহিদ আলীর সাথে আমার শেষ কথা হয়। সে ঘুমিয়ে পড়লে আমি রাতের খাবার খেতে বাড়িতে যাই। পরে এসে রাত আড়াইটা পর্যন্ত ডিউটি করে বাড়িতে চলে যাই।

নিহতের ভাই আসিদ আলী ও চাচাতো ভাই রুবেল হোসেন বলেন, সাহিদ খুবই শান্তসৃষ্ট ছিল। কারো সাথে তার কোন পূর্ববিরোধ ছিল না। সে তার কক্ষে আত্মহত্যা করতে পারতো। নির্মাণাধীন ভবণের ২য় তলায় ঝুলন্তাবস্থায় লাশ পাওয়া যাওয় তার সন্দিহান। তারা পুলিশ প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করেছেন।

নির্মাণাধীন ভবণের পরিচালক হাসান আলী বলেন, সকালে খবর পেয়ে সাহিদ আলীর দুই ভাই ও বোনসহ ঘটনাস্থলে আসি। সে দীর্ঘদিন যাবত আমাদের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অধীনে কাজ করছে। তার অনাকাঙ্ক্ষিত মুত্যুতে আমরা মর্মাহত।

হযরত শাহখাকী (রহ) আলিম মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল এ কে এম ইয়াকুব আলী বলেন, শিক্ষার্থীরা ঝুলন্ত লাশ দেখে আমাকে জানায়। আমি বিষয়টি সাথে সাথে জুড়ি থানাকে অবগত করলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোশাররফ হোসেন জানান, লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।