জুড়ী প্রতিনিধি : মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীতে পরকীয়া প্রেমিকাসহ জনতার হাতে আটক হয়েছেন ৫ সন্তানের জনক। আটক ব্যক্তির নাম আলমগীর হোসেন (৩৫)। সে উপজেলার জায়ফরনগর ইউনিয়নের বেলাগাও গ্রামের শাজন মিয়ার ছেলে। প্রেমিকা একই গ্রামের মৃত ছিদ্দিক আলীর মেয়ে শরীফা বেগম (২৫)।

শুক্রবার (৭ অক্টোবর) রাতে খবর পেয়ে জুড়ী থানার এসআই মহসিনের নেতৃত্বে পুলিশ প্রেমিক যুগলকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাতেই পুলিশ ওই মহিলাকে ছেড়ে দেয়। শনিবার ( ৮ অক্টোবর) আলমগীর হোসেন কে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পূর্ব বেলাগাও জামে মসজিদের ক্যাশিয়ার নুরুল মিয়া ও ব্যাবসায়ী মনির মিয়া জানান, আটক আলমগীর দীর্ঘদিন যাবত স্বামী পরিত্যক্তা শরীফা বেগমের বাড়ীতে আসা যাওয়া করত। এর সুবাদে শরীফার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। শারীরিক সম্পর্কের জেরে প্রায়ই আলমগীর ঐ বাড়ীতে আসা যাওয়া করত। গত ১০/১৫ দিন পূর্বে জনতা তাদের আটক করলে আলমগীরের আত্নীয় স্বজন সুষ্ঠ বিচার করে দিবেন বলে তাকে ছাড়িয়ে নেন। পরে বিচারের নামে তারা কালক্ষেপণ করতে থাকে। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এরিমধ্যে আবার গতরাতে তাকে প্রেমিকার ঘরে হাতেনাতে ধরে জনতা ধুলাই দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে পুলিশ সহ সাংবাদিকদের খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে জুড়ী থানার এসআই মহসিনের নেতৃত্বে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ সময় শত শত জনতা তাদের বিচার চেয়ে স্লোগান দিতে থাকে।

আলাপকালে এলাকাবাসীরা জানান, তাদের অসামাজিক কার্যকলাপে আমরা অতিষ্ঠ। তাকে (আলমগীর) কয়েকবার আটক করলেও প্রভাবশালী হওয়ায় বার বার অনৈতিক কাজ করেও পার পেয়ে যাচ্ছে। এতে করে এলাকার সম্মানহানি সহ উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত ১৫ দিন আগে তাদেরকে এলাকাবাসী আটক করলে আলমগীরের আত্নীয়রা জিম্মায় নিয়ে সুষ্ঠ বিচার করবেন বলে তাকে ছাড়িয়ে নিলেও কোন বিচার মিমাংসা করেন নি। আমরা প্রশাসনের কাছে এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল কাশেম ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ১৫ দিন আগেও তাকে ঐ মহিলার সাথে একবার ধরা হয়। তখন তাঁর আত্নীয় স্বজন তাকে জিম্মায় নিয়ে সুষ্ঠ বিচার করবেন বলে আশ্বস্ত করলেও গতকাল রাতে আবারো এলাকাবাসী তাকে মহিলার ঘর থেকে আটক করে পুলিশে দেয়।

জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুম রেজা বলেন, ঘটনাটি এলাকাবাসী আমাকে জানালে আমি পুলিশকে অবহিত করি। পরে পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ যায়। এ ঘটনায় আলমগীর হোসেনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে‌।