ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : “কোভিডোত্তর বিশ্বের টেকসই উন্নয়ন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির নেতৃত্ব ও অংশগ্রহন”-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩০তম আন্তর্জাতিক ও ২৩তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা দপ্তরের উদ্যোগে সুর সম্রাট আলউদ্দিন খাঁ সঙ্গীতাঙ্গনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খান। জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আব্দুল কাইয়ূমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র মিসেস নায়ার কবির, সিভিল সার্জন ডাক্তার মোঃ একরাম উল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোজাম্মেল হোসেন রেজা, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজউদ্দিন জামি।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, দেশে প্রায় ২৪ লাখের মত প্রতিবন্ধী রয়েছে। তাদের মূল স্রোতধারায় ফিরিয়ে আনা ব্যতীত সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই সরকার প্রতিবন্ধীদের জীবন মান উন্নয়নে নানামূখী পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে। যার ফলশ্রুতিতে প্রতিবন্ধীরা দেশের বিভিন্ন সেক্টরে নিজেদের দক্ষতার প্রমান দিচ্ছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোট প্রতিবন্ধীর সংখ্যা ৫০ হাজারের বেশী।

তাদেরকে প্রতি মাসে ৭৫০ টাকাকরে ভাতা দেয়া হয়ে থাকে। পরে প্রতিবন্ধীদের মাঝে নগদ অর্থসহ ৫ প্রতিবন্ধীর মাঝে হুইল চেয়ার প্রদান করা হয়। ২২ জনকে ১০ হাজার করে ও বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্ত ৮০ জন প্রতিবন্ধীর হাতে ৫০ হাজার করে টাকার চেক তুলে দেন অতিথিরা।