এম মাঈন উদ্দিন, মিরসরাই : ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের অনেক ইতিহাস, ঐতিহ্য রয়েছে। ছাত্রলীগ একটি সুশৃংখল সংগঠন। মাদকাসক্ত, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ কাউকে ছাত্রলীগের পদ দেয়া হবে না। মেধাবী ছাত্র ও দক্ষ সংগঠনকরা এই সংগঠনের পদে আসবেন। সকলকে জঙ্গীবাদ, মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে, অপপ্রচার রুখে দাঁড়াতে হবে। আমার ভয় হচ্ছে দেশ যেভাবে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, একটি চক্র যুব সমাজকে মেধাশূন্য করতে ইয়াবা, ফেনসিডিল সহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য ছড়িয়ে দিচ্ছে। আমাদের এগুলো থেকে দুরে থাকতে হবে।’

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার মঘাদিয়া নুরুল আবছার চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে ১১ নং মঘাদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইটি বিশেষজ্ঞ ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহবুব রহমান রুহেল এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আজ থেকে ১৫-২০ বছর আগে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ অনেক নির্যাতিত হয়েছে বিএনপির জামায়াতের সরকারের আমলে। ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত ৫ বছরে মিরসরাইয়ে ২৯টি লাশ পড়েছে। আগামীতে তারা ক্ষমতায় আসলে আবরো এমন চিত্র দেখা যাবে। তাই ছাত্রলীগের সকল ভাইকে এই অপশক্তির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে থাকতে হবে।’

ওইদিন বিকেল ৩টায় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক শামীম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক আবু নছর রিপন, শাখাওয়াত বাবুর যৌথ সঞ্চালনায় উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন মিরসরাই উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মাসুদ করিম রানা।

প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন চৌধুরী তপু।
বিশেষ বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নুরুল আনোয়ার বাহার চৌধুরী, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, সদস্য ফেরদৌস হোসেন আরিফ, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি কাউছার রায়হান, ছাত্র বৃত্তি বিষয়ক উপ-সম্পাদক ফৌজিয়া নিজামী তামান্না, ৬ নং ইছাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল মোস্তফা, ১১ নং মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন মাষ্টার, ১৬ নং সাহেরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হায়দার চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য নুরুল গনি, হাজী বেলাল উদ্দিন, মঘাদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফায়েল উল্ল্যা চৌধুরী নাজমুল, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক একরামুল হক সোহেল, আজাদ রুবেল, জাফর ইকবাল নাহিদ, মোঃ আরিফুর রহমান, মিঠুন শর্মা প্রমুখ।

উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক জাফর ইকবাল নাহিদ বলেন, সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন অত্যন্ত ঝাঁকঝমকপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ২য় অধিবেশনে সভাপতি পদে ৩ জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩৬ জন তাদের বায়োডাটা জমা দিয়েছেন। তার মধ্যে যাচাই-বাচাই করে সভাপতি, সম্পাদক নির্বাচিত করা হবে।