কাজী খলিলুর রহমান, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটিতে মেধাবী সন্তানকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় বাবা বাদী হয়ে মামলা করেছিল একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশপ্রহরীর বিরুদ্ধে। পুলিশ তাকে এক সপ্তাহেও গ্রেপ্তার না করায় আজ রোববার সকালে নলছিটি প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন বাবা। এতে অংশ নেন গ্রামবাসীও।

মানববন্ধন শেষে পুলিশ উল্টো আহত কলেজছাত্র শান্ত অধিকারীর বাবা কমল চন্দ্র অধিকারীকে গ্রেপ্তার করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্দ হয়েছেন শান্তর পরিবার ও মানববন্ধনে অংশ নেওয়া গ্রামবাসী। তাঁরা কমলের মুক্তি ও হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি সৈয়র ভোজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরি সঞ্জয় মন্ডলকে গ্রেপ্তার এবং দৃষ্টান্তমূল শাস্তির দাবি জানান।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীরা অভিযোগ করেন, কমল চন্দ্র অধিকারীর সঙ্গে প্রতিবেশী সঞ্জয় মন্ডলের পরিবারের জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনায় একাধিকবার শালিস মিমাংসা হলেও সঞ্জয় মন্ডলের পরিবার তা মানছেন না। উল্টো বিভিন্ন সময় কমল চন্দ্র অধিকারীকে গ্রামছাড়া করার হুমকি দিয়ে আসছিল। এরই জের ধরে গত ১৬ এপ্রিল বাড়ির কাছেই সঞ্জয় মন্ডল ও তাঁর মা অঞ্জলী রানী মন্ডল কমলের স্ত্রী কল্যাণী রানীকে পিটিয়ে আহত করে। মাকে বাঁচাতে গেলে ছেলে বরিশাল অমৃত লাল দে কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী শান্ত অধিকারীকেও এলোপাথারি পিটিয়ে আহত করে।

এতে শান্তর মাথা ফেটে যায়। গুরুতর অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখানেই চিকিৎসা চলছে শান্তর। এ ঘটনায় শান্তর বাবা কমল চন্দ্র অধিকারী হামলাকারী সঞ্জয় মন্ডলসহ দুই জনের নামে নলছিটি থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এক সপ্তাহেও আসামিদের গ্রেপ্তার না করায় রোববার সকালে নলছিটি প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে শান্তর পরিবার। এতে শান্তর বাবাসহ গ্রামের শতাধিক মানুষ অংশ নেয়। মানববন্ধন শেষে আসামি বিদ্যালয়ের দপ্তরি কাম নৈশপ্রহরী সঞ্জয় মন্ডলকে গ্রেপ্তার ও চাকরি থেকে অপসারণের দাবিতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দিতে যাওয়ার পথে পুলিশ শান্তর বাবাকে গ্রেপ্তার করে।

শান্তর মা কল্যাণী রানী অধিকারী অভিযোগ করেন, ছেলেকে হত্যাচেষ্টার বিচার চাইতে গিয়ে উল্টো ছেলের বাবাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অথচ আমাদের মামলার আসামিরা প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরছে, তাদের পুলিশ গ্রেপ্তার করছে না। এটা কেমন বিচার? তিনি তাঁর স্বামীর মুক্তি ও শান্তকে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি সঞ্জয়কে গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

নলছিটি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আউয়াল জানান, মানববন্ধন করার কারনে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। গত ১৮ এপ্রিল সঞ্জয়ের ভাই প্রসঞ্জিত মন্ডলের দায়ের করা একটি মামলায় কমল চন্দ্র অধিকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।