এম. মনিরুজ্জামান, রাজবাড়ী প্রতিনিধি : দুই বাংলার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা রোজিনা ওরফে রেনু দুই শতাধিক দুস্থ নারী ও পুরুষের মাঝে শাড়ি কাপড় ও লুঙ্গি বিতরণ করেছেন। রোববার (১ মে) বিকালে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার জুড়ান মোল্লার পাড়ায় তার মায়ের বাড়ির উঠানে জাকাতের অর্থ দিয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও দুস্থ অসহায় নারী পুরুষের মাঝে শাড়ি কাপড় ও লুঙ্গি বিতরণ করেন।

এ ছাড়াও তিনি তাঁর গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ী শহরের ভবানিপুর এবং ঢাকায়ও দরিদ্রের মাঝে শাড়ি কাপড় ও লুঙ্গি বিতরণ করেছেন বলে জানান। এ সময় পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উপকারভোগী এক বৃদ্ধ বলেন, নিজে কাম-কাইজ তেমন করতে পারিনা। মাইনসের কাছে চাইয়া-চিন্তা চলতে হয়। সেদিন এলাকার একজন বাড়ি এসে একটা লুঙ্গি দিইয়া গেছে। আইজ রোজিনা আপা আমারে ডাইকা একটা লুঙ্গি দিছে। অহন আর চিন্তা নাই। অন্তত এই বছরডা চইলা যাবেনে।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, দেশের জনপ্রিয় নায়িকা রোজিনা ম্যাডাম প্রতি বছর ঈদের আগে গ্রামের বাড়ি এসে তিনি দরিদ্র মানুষের মাঝে শাড়ি-কাপড় বিতরণ করেন। সারা বছর এলাকার দরিদ্র মানুষকে তিনি দান, সাদকা করে থাকেন। আমরা তাঁর সাথে সারাটি জীবন কাটিয়েছি। যখন তিনি গ্রামে ফিরে আসেন তখন গ্রামের সাধারণ মানুষ আনন্দ প্রকাশ করেন। এলাকার মুসুল্লিদের কথা চিন্তা করে তিনি বাড়ির আঙ্গিনায় একটি সুন্দর “দশ গম্বুজ মা খাদিজা জামে মসজিদ” নির্মাণ করেছেন। মসজিদটি নির্মাণের পর থেকে এখানে প্রচুর মুসুল্লি হয়।

নায়িকা রোজিনা বলেন, আমার গ্রামের বাড়ি রাজবাড়ী শহরের ভবানীপুর। গোয়ালন্দ হচ্ছে তাঁর নানা বাড়ি। এখানেই তাঁর জন্ম। মায়ের বড় সন্তান হিসেবে তাঁর অধিকাংশ সময় কেটেছে গোয়ালন্দে। এখানেই তিনি বড় হয়েছেন। বাড়ির বড় সন্তান হিসেবে এই জমি নানা তার মায়ের নামে দেন। মায়ের সূত্র ধরে তিনি জমির মালিক হন। পরবর্তীতে তিনি ২০২০ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে মসজিদ নির্মাণের কাজ শুরু করেন। প্রাথমিকভাবে তুরুষ্কের মডেল দেখে দুটি মিনার সহ ১০টি গম্বুজ দিয়ে তুরস্কের নকশায় প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকা ব্যায়ে পুরোনোর আদলে তাঁর মায়ের নামে “দশ গম্বুজ মা খাদিজা জামে মসজিদ” আধুনিক দৃষ্টি নন্দন মসজিদ গড়ে তুলেন।