অজ্ঞাত ট্রাকচালক আসামী

গাজীপুর মহানগর প্রতিনিধি : গাজীপুরে আলোচিত রবিউল ইসলম নিহতের ঘটনায় মহানগরের বাসন থানায় মামলা হয়েছে। গত বুধবার রাতে নিহত রবিউলের ছোট ভাই মহিদুল ইসলামের দায়ের করা এ মামলায় অজ্ঞাত ট্রাকচালকে আসামী করা হয়েছে।

মামলার আরজিতে উল্লেখ করা হয়, রবিউল গত বুধবার রাতে বাসন থানা থেকে বাসায় ফিরছিলেন। এসময় তার সাথে ছিলেন সাগর মিয়া, মো. সেলিম, মো. এমারত হোসেন। তারা বুধবার রাত ১টা ২০ মিনিটে মহাসড়ক পার হওয়ার সময় বেপরোয়া গতির অজ্ঞাত একটি ট্রাক রবিউলকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে রবিউল রাস্তায় পড়ে গিয়ে মাথা, কপাল, পা সহ শরীরের বিভিনস্থানে গুরুতর রক্তাক্ত আঘাতপ্রাপ্ত হয়।

এ সময় তার সাথে থাকা সাগর মিয়া ও মোঃ সেলিম তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল হতে তাকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্স যোগে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়। ওই দিন রাত ২টা ৫০ মিনিটে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এদিকে পুলিশী নির্যাতনে রবিউল নিহতের গুজবে এলাকায় তান্ডবের ঘটনায় পৃথক আরেকটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানা গেছে।

উল্লেখ্য, সুতা ব্যবসায়ী রবিউল বাসন থানায় পুলিশের নির্যাতনে নিহত হয়েছে এমন গুজবে গত বুধবার বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী একটি পুলিশ বক্সে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেন। বিক্ষুব্দ জনতা এসময় চারটি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে এবং প্রায় দুই ঘণ্টা ঢাকা-টাঙ্গাইল ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গেলে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে জিএমপির উপকমিশনার ও তার দেহরক্ষীসহ বেশ কয়েকজন আহত হন। ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিও গঠন করে জিএমপি। অপরদিকে রবিউলকে আটক ও ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় দুই পুলিশ অফিসারকে বাসন থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়।